গণনার ফল 
মধ্যপ্রদেশ - 230
PartyLW
CONG3878
BJP3079
IND14
OTH20
রাজস্থান - 199
PartyLW
CONG099
BJP073
IND0118
OTH113
ছত্তিশগঢ় - 90
PartyLW
CONG2939
BJP78
BSP+43
OTH00
তেলেঙ্গানা - 119
PartyLW
TRS088
TDP, CONG+021
AIMIM07
OTH03
মিজোরম - 40
Party20182013
MNF265
IND80
CONG534
OTH10
  • search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

    দেশের এই শহর কর্মীদের সবচেয়ে বেশি মাইনে দেয়, জানুন সমীক্ষা কী বলছে

    বেঙ্গালুরু আগে পরিচিত ছিল বাগিচা শহর হিসাবে। সেই নামটা রয়ে গিয়েছে। তবে তার সঙ্গে গত দুই দশকে যুক্ত হয়েছে আরও একটি নাম। 'সিলিকন ভ্যালি অব ইন্ডিয়া'। দেশ-বিদেশের সেরা তথ্য প্রযুক্তি সংস্থাগুলির সিংহভাগের প্রধান কার্যালয় এই বেঙ্গালুরুতে। দেশের আইটি রাজধানী হিসাবেও বিদেশে বেঙ্গালুরুর পরিচয় রয়েছে। এহেন শহরের কর্মীরা সবচেয়ে বেশি বেতনভুক হবেন তাতে আর সন্দেহ কী।

    কর্মীদের বেশি বেতন দেওয়ায় দেশে ফার্স্ট বয় বেঙ্গালুরু, জানুন কোথায় দাঁড়িয়ে বাকী শহরগুলি

    হার্ডওয়্যার ও নেটওয়ার্কিং, সফটওয়্যার ও আইটি সার্ভিস এবং কনজিউমার সেক্টর - এই তিন ক্ষেত্রে ভারতে সবচেয়ে বেশি রোজগার করা যায়। লিঙ্কডইন এই প্রথম এক সমীক্ষা করেছে যেখানে কর্মীদের বেতন নিয়ে নানা তথ্য উঠে এসেছে।

    শহর হিসাবে বিচার করলে দেখা যাবে বেঙ্গালুরু সারা দেশে সবচেয়ে বেশি হারে বেতন দিয়ে থাকে। তারপরই রয়েছে দিল্লি ও মুম্বই। বেঙ্গালুরুতে প্রযুক্তি জগতের সঙ্গে যুক্তদের বেতন আকাশছোঁয়া।

    কর্মীদের বেশি বেতন দেওয়ায় দেশে ফার্স্ট বয় বেঙ্গালুরু, জানুন কোথায় দাঁড়িয়ে বাকী শহরগুলি

    সমীক্ষা বলছে, হার্ডওয়্যার ও নেটওয়ার্কিংয়ের কাজে বছরে ১৫ লক্ষ টাকা বেতন পাওয়া যায়। সফটওয়্যারের কাজে ১২ লক্ষ টাকা ও কনজিউমার সেক্টরে বছরে ৯ লক্ষ টাকা আয় করা যায়।

    সবার ওপরে রয়েছে বেঙ্গালুরু। সারা দেশের প্রথম পাঁচটি সেক্টরে যেখানে সবচেয়ে বেশি বেতন হয়, তার হিসাব করলে দেখা যাবে বেঙ্গালুরুতে তার গড় দাঁড়ায় বছরে ১১ লক্ষ ৬৭ হাজার ৩৩৭ টাকা। মুম্বইয়ে সেখানে ৯ লক্ষ ৩ হাজার ৯২৯ টাকা। দিল্লি-এনসিআর-এ ৮ লক্ষ ৯৯ হাজার ৪৮৬ টাকা। হায়দরাবাদে ৮ লক্ষ ৪৫ হাজার ৫৭৪ টাকা। এবং চেন্নাইয়ে গড়ে বছরের বেতন এই পাঁচ সেক্টরে হয় ৬ লক্ষ ৩০ হাজার ৯২০ টাকা।

    কর্মীদের বেশি বেতন দেওয়ায় দেশে ফার্স্ট বয় বেঙ্গালুরু, জানুন কোথায় দাঁড়িয়ে বাকী শহরগুলি

    এবার দেখা যাক, কোন সেক্টরে কেমন গড় বার্ষিক আয় হয়। প্রথমেই আসছে হার্ডওয়্যার অ্যান্ড নেটওয়ার্কিং। এই সেক্টরে বছরে গড়ে ১৪ লক্ষ ৭২ হাজার ৬৭১ টাকা রোজগার করা যায়। সফটওয়্যার অ্যান্ড আইটি সার্ভিসে গড়ে ১২ লক্ষ ০৫ হাজার ৩৪১ টাকা আয় হতে পারে। কনজিউমার গুডস সেক্টরে বছরে ৯ লক্ষ ৯৫ হাজার ১৬১ টাকা আয়ের উপায় রয়েছে। তারপরে রয়েছে স্বাস্থ্য পরিষেবা। এই সেক্টরে বছরে গড়ে ৯ লক্ষ ৫৯ হাজার ৭৮৯ টাকা আয় করেন অনেকেই।

    কর্মীদের বেশি বেতন দেওয়ায় দেশে ফার্স্ট বয় বেঙ্গালুরু, জানুন কোথায় দাঁড়িয়ে বাকী শহরগুলি

    কর্পোরেট পরিষেবায় বছরে গড়ে ৯ লক্ষ ৩৭ হাজার ৫৮৩ টাকা, কনস্ট্রাকশন সেক্টরে বছরে গড়ে ৮ লক্ষ ৩০ হাজার ২৮৫ টাকা, উৎপাদন শিল্পে গড়ে ৮ লক্ষ ১৪ হাজার ৫৮৮ টাকা, রিয়েল এস্টেট ব্যবসায় গড়ে ৭ লক্ষ ৮২ হাজার ৮৭১ টাকা ও গণমাধ্যমে গড়ে ৭ লক্ষ ১৫ হাজার ১৪৮ টাকা রোজগার করা যায়।

    ভারতে যে পদগুলিতে পৌঁছতে পারলে সবচেয়ে বেশি রোজগার করা যায় তা হল - ডিরেক্টর অব ইঞ্জিনিয়ারিং, চিফ অপারেটিং অফিসার, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর, ভাইস প্রেসিডেন্ট সেলস ও সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার।

    কর্মীদের বেশি বেতন দেওয়ায় দেশে ফার্স্ট বয় বেঙ্গালুরু, জানুন কোথায় দাঁড়িয়ে বাকী শহরগুলি

    ভারতে লিঙ্কডইনের ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫ কোটি। যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পর পৃথিবীতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। গত দুই মাস ধরে ব্যবহারকারীদের তথ্য সংগ্রহ করে তা সমীক্ষা করে এই ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। সংস্থা মনে করছে, এই ধরনের সমীক্ষায় স্বচ্ছতা বাড়বে। কর্মীরা কত বেতন পাচ্ছেন ও বাজারে ঠিক কত বেতন চলছে তা যাচাই করা যাবে। ফলে সবদিক থেকে স্বচ্ছতা আসবে ও কর্মীরা বলীয়ান হয়ে উঠবেন।

    English summary
    Bengaluru pays the highest salaries in India, says LinkedIn survey on job sector profiles
    For Daily Alerts

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more