• search

মহিলাদের সম্ভ্রম নিয়ে লজ্জাজনক বক্তব্য এই জেলাশাসকের , শুনুন কী বলেছেন তিনি

  • By Sritama Mitra
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    শৌচালয় গড়ার টাকা না থাকলে বিক্রি করে দিন স্ত্রীকে, মহিলাদের সম্ভ্রম নিয়ে এমন বক্তব্য় কোনও যে সে ব্যক্তির নয়, বরং এক জেলাশাসকের। বিহারের ঔরঙ্গাবাদের জেলাশাসক কানওয়ালের তনুজ , জামহোরের এক গ্রামে গিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় সরকারের স্বচ্ছ ভারত প্রকল্পের প্রচারে। আর সেখানে ওই প্রকল্প সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে এমনই মন্তব্য করে বসেন এই উচ্চ শিক্ষিত সরকারি আধিকারিক।

    মহিলাদের সম্ভ্রম নিয়ে লজ্জাজনক বক্তব্য এই জেলাশাসকের , শুনুন কী বলেছেন তিনি

    জেলাশাসক কানওয়াল তনুজ বলেন, 'যদি পারেন নিজের স্ত্রীর সম্ভ্রম রক্ষা করুন, আপনি ঠিক কতটা গরিব? আপনার স্ত্রীর মূল্য যদি ১২০০০ টাকার থেকে কম হয় তাহলে হাত তুলুন। আগে আমার কথা শুনুন তারপর হাত তুলুন। এমন কেউ কি আছেন যিনি বলবেন আমাকে ১২ ০০০ টাকা দিন আর বিনিময়ে স্ত্রীর সম্ভ্রম নিয়ে নিন? কেউ কি এমন আছেন?'

    জেলাশাসকের এরকম বক্তব্য শুনে , এক গ্রামবাসী বলেন, বাড়িতে শৌচাগার তৈরির মতো অর্থ তাঁর কাছে নেই। এই উত্তর শুনে জেলাশাসক বলেন,'আমি আপনার সঙ্গে কথা বলব. যদি আপনার কথা সত্যি হয়, তাহলে যান, নিজের স্ত্রীকে বিক্রি করে দিন। অনেকেই আগাম টাকার কথা বলেছেন। তাঁরা সেই টাকা পেয়েছেন। তবে অপ্রোয়জনীয় কাজে সেই টাকা খরচ করছেন।'

    English summary
    Aurangabad District Magistrate Kanwal Tanuj on Sunday triggered a controversy with his statement while he was addressing a gathering of villagers in Jamhore. In order to raise awareness about the Swachh Bharat campaign, Tanuj participated in the event and said,”Due to lack of toilets, women get raped and harassed. It only costs Rs. 12,000 for the construction of the toilet. Is 12,000 more than anyone’s wife’s dignity? Who can let her wife get raped in return of Rs 12000?”.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more