• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ডাক্তারদের হেনস্থা করলেই এবার সাত বছরের জেল! প্রতিশ্রুতির কয়েক ঘণ্টাতেই কঠোর আইন অমিত শাহর

এদিনই ডাক্তারদের আশ্বস্ত করে অমিত শাহ জানিয়ে দিয়েছিলেন যে তাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কঠোর আইন আনা হবে কেন্দ্রের তরফে। সরকার যে সব সময় তাদের পাশে রয়েছে সেই কথাও ডাক্তারদের বলেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এরপর ডাক্তারদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি পূরণে একদিনও সময় নষ্ট না করে নতুন কঠোর আইন আনার কথা ঘোষণা করে দিল কেন্দ্র।

চিকিৎসকদের লড়াইকে কুর্নিশ অমিত শাহর

চিকিৎসকদের লড়াইকে কুর্নিশ অমিত শাহর

করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে চিকিৎসকদের লড়াইকে কুর্নিশ জানাতে এদিন ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের ডাক্তারদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। পাশাপাশি ডাক্তারদের পূর্ব পরিকল্পিত প্রতীকী প্রতিবাদ থেকে সরে আসার আবেদন জানিয়ে এদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাদের সবরকমের সাহায্যের আশ্বাস দেন।

স্বররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিতে আশ্বস্ত হন ডাক্তাররা

স্বররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিতে আশ্বস্ত হন ডাক্তাররা

এরপরই স্বররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিতে আস্বস্ত হয়ে ২৩ এপ্রিল 'কালো দিন'-এর প্রতিবাদ প্রত্যাহার করলেন আইএমএ-র চিকিৎসকরা। পাশাপাশি এই কনফারেন্সে কেন্দ্রীয় সরকারকে নতুন আইন আনতে আর্জি জানিয়েছিলেন ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন।

ডাক্তারদের আর্জি মেনে কঠওর আইন কেন্দ্রের

ডাক্তারদের আর্জি মেনে কঠওর আইন কেন্দ্রের

তাদের আর্জি ছিল, কেন্দ্রীয় সরকার ডাক্তার এবং স্বাস্থ্য কর্মীদের জন্য অন্য আইন আনুক, যাতে তাদের উপর আর কোনরকম হেনস্থার ঘটনা না ঘটে। গত কয়েকদিন ধরে ডাক্তারদের উপর হয়ে চলা বিভিন্ন ঘটনার প্রেক্ষিতেই এই আবেদন ডাক্তারদের। আর সেই আবদনের ভিত্তিতেই ডাক্তারদের উপর কোনও হামলা হলে তা জামিন অযোগ্য অপরাধ বলে গণ্য করা হবে বলে জানাল কেন্দ্র। পাশাপাশি এই অপরাধে ৭ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে বলেও ঘোষণা করা হয়।

স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা

স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা

করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে দিনরাত এক করে নিরন্তর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন দেশের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। তবে এরই মধ্যে একাধিকবার দেশের বিভিন্ন জায়গায় করোনা পরীক্ষা করতে যাওয়া স্বাস্থ্যকর্মী এবং ডাক্তারদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

বাড়ি পাচ্ছেন না চিকিৎসকরা

বাড়ি পাচ্ছেন না চিকিৎসকরা

এছাড়া রাজধানী দিল্লি সহ বিভিন্ন জায়গায় করোনা ছড়িয়ে পড়ার ভয়ে ডাক্তাররা বাড়ি ভাড়া পাচ্ছেন না। যারা বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতেন তাঁদেরকে বের করে দেওযা হয়েছে। দিল্লি সরকার ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর বারবার হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও এই কাজ করে এসেছেন বাড়ি মালিকরা।

'হোয়াইট অ্যালার্ট' ঘোষণা করেছিলেন ডাক্তাররা

'হোয়াইট অ্যালার্ট' ঘোষণা করেছিলেন ডাক্তাররা

এই সব বিষয় নিয়েই জেরবার ডাক্তাররা প্রতিবাদ জানাতে ২২ এপ্রিল, অর্থাৎ আজ 'হোয়াইট অ্যালার্ট' ঘোষণা করেছিলেন। সকলকে মোমবাতি জ্বালিয়ে প্রতিবাদ জানানোর আহ্বান জানিয়েছিল আইএমএ। একইসঙ্গে আগামী ২৩ এপ্রিল 'কালো দিন' হিসেবে ঘোষণা করেন তাঁরা। তবে অমিত শাহর সঙ্গে কথা বলে আপাতত সেই প্রতিবাদ বাতিল করল ডাক্তাররা। আর ডাক্তারদের আশ্বস্ত করার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এই নতুন আইন আনল কেন্দ্র।

English summary
attacks on doctors to be non bailable offnce said government after bringing in new law
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X