মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য 'সাম্প্রদায়িক', কোথায় উঠল এমন অভিযোগ

  • Posted By: Dibyendu
Subscribe to Oneindia News

অসমের জাতীয় পঞ্জীকরণ ইস্যুতে কোনও ভাবেই নাক গলাবেন না। এমনটাই বলল বিজেপির বরাক ভ্যালির কোঅর্ডিনেশন কমিটি। অসম নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য সাম্প্রদায়িক বলেও মন্তব্য করেছে বিজেপি।

অসমের জাতীয় পঞ্জীকরণ ইস্যুতে কোনও ভাবেই নাক গলাবেন না। এমনটাই বলল বিজেপির বরাক ভ্যালির কোঅর্ডিনেশন কমিটি। অসম নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য সাম্প্রদায়িক বলেও মন্তব্য করেছে বিজেপি। করিমগঞ্জের বিজেপি অফিসে কোঅর্ডিনেশন কমিটির বৈঠকে শিলচরের বিধায়ক তথা অসম বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার দিলীপ কুমার পাল বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস প্রধানের অসমের বর্তমান পরিস্থিতি জটিল করা উচিত নয়। দিনকয়েক আগে বীরভূমে জনসভা থেকে অসম পরিস্থিতি নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার বীরভূমের আমোদপুরে সভা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, অসমে সবাই বাঙালি খেদাও করছে। জাতীয় নাগরিক পঞ্জীকরণের প্রথম খসড়ায় ৭০ শতাংশ বাঙালির নাম বাদ যাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বাংলা-অসম সীমানায় গণ্ডগোল হলে তার প্রভাব পুরো বাংলাতেই পড়বে। বাংলার কেউ অসমে থাকলে তাঁকে বুকে করে রাখার বার্তাও দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অসম নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যকে সাম্প্রদায়িক বলেই অ্যাখ্যা দিয়েছে আসম রাজ্য বিজেপি। অসমে জাতীয় পঞ্জীকরণের কাজ শান্তিতেই হচ্ছে বলে দাবি করেছে বিজেপি। বিজেপি নেতা, শিলচরের বিধায়ক তথা অসম বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার দিলীপ কুমার পাল বলেন, অসমে বাঙালি ও অসামিয়াদের মধ্যে কোনও শত্রুতা নেই। সেখানকার মানুষই জানে তারা পরিস্থিতির মোকাবিলা করবে কী ভাবে। বাইরের কেউ এসে এই প্রক্রিয়াকে কর্দমাক্ত করতে পারবে না বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। বরাক উপত্যকার তিনটি জেলার প্রায় ৪১ লক্ষ মানুষ জাতীয় পঞ্জীকরণের জন্য আবেদন করেছিলেন। যাঁদের মধ্যে প্রথম তালিকায় ২৪ লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়েছে।

করিমগঞ্জের বিজেপি অফিসে কোঅর্ডিনেশন কমিটির বৈঠকে শিলচরের বিধায়ক তথা অসম বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার দিলীপ কুমার পাল বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস প্রধানের অসমের বর্তমান পরিস্থিতি জটিল করা উচিত নয়। দিনকয়েক আগে বীরভূমে জনসভা থেকে অসম পরিস্থিতি নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার বীরভূমের আমোদপুরে সভা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, অসমে সবাই বাঙালি খেদাও করছে। জাতীয় নাগরিক পঞ্জীকরণের প্রথম খসড়ায় ৭০ শতাংশ বাঙালির নাম বাদ যাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বাংলা-অসম সীমানায় গণ্ডগোল হলে তার প্রভাব পুরো বাংলাতেই পড়বে। বাংলার কেউ অসমে থাকলে তাঁকে বুকে করে রাখার বার্তাও দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

অসম নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যকে সাম্প্রদায়িক বলেই অ্যাখ্যা দিয়েছে আসম রাজ্য বিজেপি। অসমে জাতীয় পঞ্জীকরণের কাজ শান্তিতেই হচ্ছে বলে দাবি করেছে বিজেপি।

অসমের জাতীয় পঞ্জীকরণ ইস্যুতে কোনও ভাবেই নাক গলাবেন না। এমনটাই বলল বিজেপির বরাক ভ্যালির কোঅর্ডিনেশন কমিটি। অসম নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য সাম্প্রদায়িক বলেও মন্তব্য করেছে বিজেপি। করিমগঞ্জের বিজেপি অফিসে কোঅর্ডিনেশন কমিটির বৈঠকে শিলচরের বিধায়ক তথা অসম বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার দিলীপ কুমার পাল বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস প্রধানের অসমের বর্তমান পরিস্থিতি জটিল করা উচিত নয়। দিনকয়েক আগে বীরভূমে জনসভা থেকে অসম পরিস্থিতি নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার বীরভূমের আমোদপুরে সভা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, অসমে সবাই বাঙালি খেদাও করছে। জাতীয় নাগরিক পঞ্জীকরণের প্রথম খসড়ায় ৭০ শতাংশ বাঙালির নাম বাদ যাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বাংলা-অসম সীমানায় গণ্ডগোল হলে তার প্রভাব পুরো বাংলাতেই পড়বে। বাংলার কেউ অসমে থাকলে তাঁকে বুকে করে রাখার বার্তাও দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অসম নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যকে সাম্প্রদায়িক বলেই অ্যাখ্যা দিয়েছে আসম রাজ্য বিজেপি। অসমে জাতীয় পঞ্জীকরণের কাজ শান্তিতেই হচ্ছে বলে দাবি করেছে বিজেপি। বিজেপি নেতা, শিলচরের বিধায়ক তথা অসম বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার দিলীপ কুমার পাল বলেন, অসমে বাঙালি ও অসামিয়াদের মধ্যে কোনও শত্রুতা নেই। সেখানকার মানুষই জানে তারা পরিস্থিতির মোকাবিলা করবে কী ভাবে। বাইরের কেউ এসে এই প্রক্রিয়াকে কর্দমাক্ত করতে পারবে না বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। বরাক উপত্যকার তিনটি জেলার প্রায় ৪১ লক্ষ মানুষ জাতীয় পঞ্জীকরণের জন্য আবেদন করেছিলেন। যাঁদের মধ্যে প্রথম তালিকায় ২৪ লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়েছে।

বিজেপি নেতা, শিলচরের বিধায়ক তথা অসম বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার দিলীপ কুমার পাল বলেন, অসমে বাঙালি ও অসামিয়াদের মধ্যে কোনও শত্রুতা নেই। সেখানকার মানুষই জানে তারা পরিস্থিতির মোকাবিলা করবে কী ভাবে। বাইরের কেউ এসে এই প্রক্রিয়াকে কর্দমাক্ত করতে পারবে না বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

বরাক উপত্যকার তিনটি জেলার প্রায় ৪১ লক্ষ মানুষ জাতীয় পঞ্জীকরণের জন্য আবেদন করেছিলেন। যাঁদের মধ্যে প্রথম তালিকায় ২৪ লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়েছে।

এর আগে, অসমে জাতীয় নাগরিক পঞ্জীকরণ ইস্যুতে এবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে একাধিক এফআইআর দায়ের হয় অসমে। বৃহস্পতিবার একটি এফআইআর দায়ের করেছিলেন অসমের শ্রমিক উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি প্রদীপ কলিতা।

English summary
Assam BJP slams West Bengal CM over NRC 'communal statements'

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.