• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

রাজস্থান: 'আকবর' নাম সরিয়ে 'আজমেঢ় কা কিল্লা', বিতর্কে বিজেপি

জয়পুর , ৫ মার্চ : রাজস্থানের আজমেঢ়ে মুঘল বাদশা আকবরের নির্মিত কেল্লার নাম বদল নিয়ে ফের একবার বিতর্কে বিজেপি। আজমেঢ়ের 'আকবর কা কিল্লার' নাম 'আজমেঢ় কা কিল্লা ও সংগ্রহশালা' হয়েছে গত বছর থেকে । আর এই নাম পরিবর্তন থেকেই শুরু বিতর্ক।

অভিযোগ, বিজেপি শাসিত রাজস্থানের এক মন্ত্রী বাসুদেব দেবনানি গত বছরে নিঃসাড়ে এই কেল্লার নাম বদলানোর নির্দেশ দেন। এমনই অভিযোগ তুলে জনৈক তারান্নুম চিস্তি একটি চিঠি লেখেন ওই মন্ত্রীকে। পাশপাশি চিঠিতে কেল্লার পুরনো নাম ফিরিয়ে 'আকবর কা কিল্লা' নাম রাখার দাবি তোলেন তিনি।

রাজস্থান: 'আকবর' নাম সরিয়ে 'আজমেঢ় কা কিল্লা', বিতর্কে বিজেপি

চিঠিতে তারান্নুম জানান দাবি না মানা হলে তার ফল ভয়ানক হবে । এদিকে, রাজস্থানের শিক্ষামন্ত্রী বাসুদেব দেবনানি কেল্লার নাম পরিবর্তনের জন্য মৌখিক নির্দেশ দেন বলে খবর। সেই নির্দেশ মেনে এলাকার সাব ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট 'আকবর কা কিল্লার' নাম পাল্টে 'আজমেঢ় কা কিল্লা ও সংগ্রহশালা' করার নির্দেশ দেন।

বিষয়টি নিয়ে মন্ত্রী বাসুদেব দেবনানিকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, আজমেঢ়ের মানুষ কে সম্মান জানাতেই এলাকার নামে কেল্লার নামকরণ নতুন করে করা হয়েছে। প্রসঙ্গত 'আকবর কেল্লা' নামটি আইনসিদ্ধ হয়ে রয়েছে ১৯৬৮ সালের গেজেট নোটিফিকেশন অনুযায়ী।

English summary
In a quiet revision of history, a fort in Ajmer that was built by the Mughal emperor Akbar has been renamed from ‘Akbar ka Qila’ to ‘Ajmer ka Qila and Sangrahalaya.’ While the renaming took place in 2015 on the silent orders of BJP minister Vasudev Devnani, it is only now that it has come to public light after Tarannum Chishti wrote a letter to the minister in the last week of February, warning dire consequences if the name was not changed back.
For Daily Alerts
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more