• search

জম্মু ও কাশ্মীর : ২২ জঙ্গিকে খতম করল সেনা

  • By Sritama Mitra
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts
    শ্রীনগর, ১৯ ফেব্রুয়ারি : ২০১৭ সালের প্রথম দুমাসের মধ্যে জম্মু কাশ্মীর ২২ জন জঙ্গিকে নিকেশ করেছে ভারতীয় সেনা। ২০১০ সালের পর এই প্রথম এত বেশি সংখ্যায় জঙ্গি নিকেশ হল। সেনা সূত্রে এইখবর জানানো হয়েছে।

    ২০১৭ এর শুরুর ৫০ দিনের হিসাবে এই সংখ্যাক জঙ্গি নিকেশ হল। অন্যদিকে জঙ্গিদের সঙ্গে লড়াইয়ে এপর্যন্ত মারা গিয়েছেন ভারতীয় সেনার ২৬ জন জওয়ান। তবে এঁদের মধ্যে শহিদ হয়এছেন ৬ জওয়ান। বাকি ২০ জন জওয়ান মারা গিয়েছে তুষার ধসের কবলে পড়ে।

    জম্মু ও কাশ্মীর : ২২ জঙ্গিকে খতম করল সেনা

    গত ১৪ ফেব্রুয়ারি সাম্প্রতিতম এনকাউন্টারের ঘটনাটি ঘটে। কাশ্মীরের বান্দিপোরা জেলার হাজিনে সেনা জঙ্গি সংঘর্ষে মারা যায় ১ জঙ্গি। সেই ঘটনায় শহিদ হন ৩ জন জওয়ান। গত ১২ ফেব্রুয়ারিতেও রক্তাক্ত হয় উপত্যকা। কাশ্মীরের কুলগামে সেনার এনকাউন্টারে নিকেশ করা হয় স্থানীয় এক বাড়িতে লুকিয়ে থাকা ২ জঙ্গিকে।

    গোয়েন্দা সূত্রের খবর, পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন গুলির উস্কানিতে কাশ্মীরের প্রায় ১০০ যুবক যোগ দিয়েছে পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠন গুলিতে। মূলত সন্ত্রাসবাদী বুরহান ওয়ানির মৃত্যুর পরই এই জঙ্গি শিবিরে যোগ দেওয়ার জিগির ওঠে কাশ্মীর জুড়ে।

    সেনাসূত্রের খবর গত ৫০ টি অপরেশনের মধ্যে, নিকেশ ছাড়াও ধরা পড়েছে বহু জঙ্গি। উত্তর কাশ্মীরের বেশ কিছু জঙ্গি মডিউলও গুঁড়িয়ে দিতে পেরেছে সেনা । বলে জানানো হয়েছে ভারতীয় সেনার তরফে। সেনার দাবি যখনই কোনও সন্ত্রাস ইস্যুতে উত্তপ্ত হয় কাশ্মীর , তখনই বাড়ে জঙ্গি কার্যকলাপ। পাশপাশি, পাকিস্তানের উস্কানিতে বহু কাশ্মীরি যবক যোগ দেয় জঙ্গি সংগঠন গুলিতে।

    English summary
    The army has lost 26 soldiers in the line of duty in Jammu and Kashmir in the first two months of 2017, while the security forces have stepped up the heat against militants, killing 22 ultras in 50 days — the highest since 2010.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more