দেশজুড়ে আজ থেকে শুরু বৃহত্তর কৃষক আন্দোলন ,সবজির দাম বাড়ার আশঙ্কা ১০ দিনের বনধ-এ

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    এদেশ একবার দেখেছে বাণিজ্য নগরী মুম্বইয়ে রাস্তায় খালি পায়ে হেঁটে চলা হাজারও বিক্ষোভকারী কৃষকের ধর্মঘটের রূপ। আজ থেকে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে এবার রাষ্ট্রীয় কিষাণ মহাসঙ্ঘ। ফেডারেশনের সঙ্গে যোগ হয়েছে ১৩০ টি কৃষক সংগঠন। যাদের একাধিক দাব দাওয়া রয়েছে। ১ লা জুন থেকে ১০ জুন পর্যন্ত চলবে এই এবারের বনধঅ। আশঙ্কা করা হচ্ছে , শাক সব্জির দামে এর প্রভাব কিছুটা হলেও পড়তে পারে।

    দেশজুড়ে আজ থেকে শুরু বৃহত্তর কৃষক আন্দোলন ,১৩০ টি সংগঠনের ১০ দিনের বনধ ঘিরে কিছু তথ্য

    ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, কৃষকরা যে ফসল উৎপন্ন করবেন, তা বিক্রি হবে গ্রামেই। সেখানে ঘর বানিয়ে গ্রামে উৎপন্ন ফসল গ্রামেই বিক্রি হবে। আর তা সরাসরি কিনতে হবে কৃষকের থেকেই।শহুরে মানু।কেও সেখানেই যেতে হবে। উল্লেখ্য, এমন বক্তব্যের নেপথ্যে কৃষকদের বেশ কিছু দাবি দাওয়া রয়েছে। দেখে নেওয়া যাক কোন কোন দাবিকে কেন্দ্র করে এই বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটতে চলেছেন কৃষকরা। এই দাবির মধ্যে রয়েছে ,কৃষিঋণ মুকুব সংক্রান্ত কিছু বিষয়, উৎপাদিত ফসলের ন্যায্য মূল্য, ফসলের ন্যূনতম সমর্থন মূল্য বাড়ানো,স্বামীনাথন কমিশনের রিপোর্টকে লাগু করা, পাম্পের জন্য বিনামূল্যের বিদ্যুৎ পরিবহণ,বিকল্প জ্বালানি হিসাবে ইথানল ব্যবহার করতে দেওয়ার দাবি।

    একাধিক তথ্যের নিরিখে জানা যাচ্ছে, এবারের আন্দোলনে আরও বড়সড় জনশক্তি নিয়ে নামছে কৃষক সংগঠনগুলি। তবে এই আন্দোলনে সামিল হবে না সিপিআইএম-র অল ইন্ডিয়া কিষাণ সংঘর্ষ সমবায় সমিতি। মনে করা হচ্ছে এই কৃষক আন্দোলনের ফলে উত্তরভারতের একাংশে ব্য়াপক প্রভাব পড়তে চলেছে। এর ফলে বাড়তে পারে সবজির দাম। চণ্ডিগড় থেকে দিল্লি , এমনকি মুম্বইতেও এর প্রভাব প্রকট হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

    English summary
    10-Day Farmer Strike to begin from today,Veggie & Milk Supply May Take Hit.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more