• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

রাজপুত্র মারাদোনার ফুটবল কেরিয়ারের সেরা মুহূর্তগুলি স্মরণ করা যাক

রাজপুত্র দিয়েগো মারাদোনার প্রয়াণের শোক ভুলতে পারছেন না ফুটবলপ্রেমীরা। বিশ্ব ফুটবলকে এমন সব মুহূর্ত উপহার দিয়েছেন এই কিংবদন্তি, যে চেষ্টা করেও সেগুলি ভুলে যাওয়া বা মুছে ফেলা সম্ভব নয়। এক নজরে সেরকমই পাঁচ মুহূর্ত দেখে নেওয়া যাক। দেখে নেওয়া যাক যে যে ঠিক কোথায় নিজের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করেছেন দিয়েগো মারাদোনা।

শতাব্দীর সেরা গোল

শতাব্দীর সেরা গোল

১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা। ম্যাচ জিতেছিল নীল-সাদা শিবির। সৌজন্যে দিয়েগো মারাদোনার দুটি বিশ্ব কাঁপানো গোল। প্রথম গোলটি এসেছিল কিংবদন্তির হাতে লেগে। যাকে 'ভগবানের হাত' বলে আখ্যা দিয়ে থাকেন আর্জেন্টিনা ভক্তরা। তা নিয়ে বিতর্কের অন্ত নেই। ফের ওই ম্যাচেই দিয়েগোর বুট থেকে যে গোল এসেছিল, সেটিকে শতাব্দীর সেরা বলে সম্মানিত করা হয়েছিল। নিজের অর্ধ থেকে বল ইংল্যান্ডের গোলরক্ষক পিটার শিল্টন সহ সাত জনকে কাটিয়ে গোল দিয়েছিলেন ফুটবলের ঈশ্বর।

১৯৮৬-এর বিশ্বকাপ জয়

১৯৮৬-এর বিশ্বকাপ জয়

১৯৮২ সালের বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকে ছিটকে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। সেই আক্ষেপ ঘুঁচেছিল চার বছর পর। ১৯৮৬ সালে মেক্সিকোয় হওয়া বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল নীল-সাদা শিবির। ফাইনালে পশ্চিম জার্মানিকে ৩-২ গোলে হারিয়েছিল দ্বিতীয় খেতাব ঘরে তুলেছিল দিয়েগো মারাদোনার দেশ। সেই ম্যাচে গোল না পেলেও অধিনায়ক হিসেবে গোটা টুর্নামেন্টে পাঁচটি গোল করে এবং করিয়ে কাপ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন কিংবদন্তি।

চ্যাম্পিয়ন নাপোলি

চ্যাম্পিয়ন নাপোলি

১৯৮৭-এর আগে পর্যন্ত বিশ্বের অন্যতম প্রাচীন সিরি এ বা ইতালিয় ফুটবল লিগে জুভেন্তাস ও এসি মিলানের দাপট ছিল। সে বছরই ওই লিগের নিচের সারির দল নাপোলিতে খেলতে গিয়েছিলেন দিয়েগো মারাদোনা। কার্যত একার দক্ষতায় ওই দলকে দুটি সিরি এ ও উয়েফা কাপ জিতেয়েছিলেন ফুটবলের রাজপুত্র। মারাদোনা ক্লাব ছাড়ার পর আর কোনও খেতাব জিততে পারেনি নাপোলি।

১৯৯০ সালের বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষ ইতালি

১৯৯০ সালের বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষ ইতালি

নাপোলিতে তিন বছর খেলে ফেলেছিলেন দিয়েগো মারাদোনা। পরিচিত নাপলেস মাঠে ক্লাবের হয়ে চোখ জুড়ানো গোল করে ফেলেছিলেন কিংবদন্তি। ভাগ্যের পরিহাসে আবার সেই মাঠেই আর্জেন্টিনার জার্সিতে ঘরের দল ইতালির বিরুদ্ধে ১৯৯০ সালের বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলতে নেমেছিলেন দিয়েগো। টাইব্রেকারে ম্যাচ জিতেছিল নীল-সাদা শিবির। তার মধ্যে একটি গোল ছিল মারাদোনার। যদিও সেই বিশ্বকাপের ফাইনাল হারতে হয়েছিল আর্জেন্টিনাকে।

বার্নাবেউ-তে রাজসীক অভ্যর্থনা

বার্নাবেউ-তে রাজসীক অভ্যর্থনা

আশির দশকের শুরুতে বার্সেলোনার জার্সিতে খেলতেন দিয়েগো মারাদোনা। ১৯৮৩ সালের কোপা দেল রে-র এক ম্যাচে চিরশত্রু রিয়াল মাদ্রিদের বিরুদ্ধে তাদেরই মাঠ বার্নাবেউ-তে এক দক্ষতায় অনবদ্য গোল করেছিলেন ফুটবলের রাজপুত্র। উঠে দাঁড়িয়ে হাততালি দিয়ে তাঁকে অভ্যর্থনা দিয়েছিল রিয়াল সমর্থকরা। এল ক্লাসিকোর ইতিহাসে এমন ঘটনা এর আগে এবং পরে কোনও দিন ঘটেনি।

ফুটবলের রাজপুত্রের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ শহর কলকাতা, কলকাতার হৃদয়ে মারাদোনা

কিংবদন্তি মারাদোনাকে বিদায় জানালেন মেসি থেকে রোনাল্ডো, নেইমার থেকে এমবাপে

English summary
Five best moments of Diego Maradona's glorious football career
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X