• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

করোনা লকডাউনে মানবিকতার নতুন দৃষ্টান্ত, রক্ত দিয়ে প্রাণ বাঁচাল মোহনবাগান সমর্থকরা

  • |
Google Oneindia Bengali News

করোনা লকডাউনে মানবিকতার নতুন দৃষ্টান্ত মোহনবাগান সমর্থকদের। লকডাউনে জরুরী পরিষেবা বাদ দিয়ে সবকিছু বন্ধ রয়েছে। লকডাউনে বন্ধ রয়েছে গণপরিবহনও। যেকারণে অসুস্থদের স্বাস্থ্যকেন্দ্র নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে বেশ সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে এক থ্যালাসেমিয়া রোগীর প্রাণ বাঁচাল বাগানের সভ্য-সমর্থকরা।

ঠিক কী ঘটেছে?

ঠিক কী ঘটেছে?

মোহনবাগান সমর্থক এক থ্যালাসেমিয়ার রোগীর এই লকডাউনে রক্তের জরুরী প্রয়োজন ছিল। লকডাউন চলায় রক্ত পাওয়া অবশ্য খুবই কঠিন হয়ে পড়ে। ফলে ঐ বাগান সমর্থক সন্তানকে নিয়ে তাঁর বাবা রীতিমতো সমস্যায় পড়েন। লকডাউনের এই পরিস্থিতিতে ত্রাতার ভূমিকায় অন্য বাগান সমর্থকরা। এক মোহনবাগানিকে রক্ত দিতে বাঁচাতে শতাধিক মোহনবাগানি ঝাঁপিয়ে পড়েন।

হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে বাগান সমর্থকদের উদ্যোগ

হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে বাগান সমর্থকদের উদ্যোগ

পুরো ঘটনা জানিয়ে এক সমর্থক বাগান সমর্থকদের নিয়ে তৈরি একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে রক্ত যোগানের জন্য অনুরোধ করেছিলেন। এরপরই রক্তের গ্রুপ জানতে চাওয়া হয়। মুহূর্তে ডোনার হিসেবে একাধিক সহৃদয় বাগান সমর্থক রক্তদানের জন্য আগ্রহী হন। এরপর বেলেঘাটার জয়ন্ত ঘোষ নামের এক যুবক ঋত্বিক ঘোষ নামের ঐ মেরিনার্স ভক্তকে রক্ত দিয়ে সাহায্য করেন।

বাগান সমর্থকদের কাছে চিরঋণী!

বাগান সমর্থকদের কাছে চিরঋণী!

ঋত্বিকের বাবা সোমেশ্বর বাবু জানিয়েছেন মোহনবাগান সমর্থকদের কাছে চিরঋণী হয়ে থাকব। তিনি আরও জানিয়েছেন, 'রক্তের প্রয়োজন ছিল। কিন্তু বাইরে লকডাউনে পরিস্থিতি একেবারে খারাপ। ছেলেকে নিয়ে এই পরিস্থিতিতে দিশেহারা অবস্থা হয়ে উঠেছিল। মোহনবাগানের যে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ রয়েছে সেখানে সাহায্য চাই। সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে মুহূর্তের মধ্যে খবর ছড়িয়ে পড়ে। প্রচুর মোহনবাগানি সমর্থকরা রক্ত দিতে রাজিও হয়ে যান। তারপর রক্তের গ্রুপ মিলিয়ে বেলেঘাটার জয়ন্ত ঘোষ রক্তদান করেন। বাগান সমর্থকদের কাছে আমি ঋণী। ওরা এই অসময়ে পাশে না দাঁড়ালে আমি নিরুপায় ছিলাম।'

রক্তদাতা বাগান সমর্থক যা বলেছেন

রক্তদাতা বাগান সমর্থক যা বলেছেন

বেলেঘাটার রক্তদাতা জয়ন্ত বাবু বলেন 'মানুষ হিসেবে অন্য মানুষের পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া কর্তব্য। মানুষ হিসেবে সেটুকুর চেয়ে একটুকুও বেশি কিছু করিনি। রক্ত দেওয়াটা আমাদের কর্তব্য। আর ছেলেটা আমার ভাইয়ের মতো, সেই সঙ্গে ও মোহনবাগান সমর্থক।একবার নয়, আবার লাগলে আবার দেব। আমরা মোহনবাগান সমর্থকরা ওর পাশে রয়েছি।ঋত্বিকের চিন্তার কিছু নেই। আমরা শতাধিক মোহনবাগান সমর্থক ওর খোঁজ নেব। সবাই ওর পাশে রয়েছে।'

'ইয়ে তো হোনা হি থা', লকডাউনে এমন অদ্ভুত পোস্ট করে কী শেখালেন জাদেজা'ইয়ে তো হোনা হি থা', লকডাউনে এমন অদ্ভুত পোস্ট করে কী শেখালেন জাদেজা

জীবনসঙ্গী খুঁজছেন? বাঙ্গালী ম্যাট্রিমনি - নিবন্ধন নিখরচায়!

English summary
A Mohun bagan fan donates blood, help thalasamia patient in CoronaLokdown Crisis
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X