• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts
Oneindia App Download

জলবায়ু বিপর্যয় পঙ্গু করে দিয়েছে গোটা বিশ্বকে, ফিরে দেখা ২০২২-এ কিছু ঘটনা

জলবায়ু বিপর্যয় পঙ্গু করে দিয়েছে গোটা বিশ্বকে, ফিরে দেখা ২০২২-এ কিছু ঘটনা
Google Oneindia Bengali News

জলবায়ু বিপর্যয়ে পঙ্গু হয়ে গিয়েছে গোটা বিশ্ব। আমরা যখন ২০২২ শেষ করতে চলেছি, নতুন বর্ষকে বরণ করে নেওয়া আগে একবার পিছু ফিরে দেখা। আমরা কী কী ঘটনা পেরিয়ে এলাম, তা আমাদের বর্তমান সময়ে কোথায় দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের জেরে ২০২২-এ এমন কিছু ঘটনা ঘটেছে, যা ২০২৩ বা আগামীকে আরও খারাপ থেকে খারাপের দিকে নিয়ে যেতে পারে।

গ্লোবাল ওয়ার্মিং বা বিশ্ব উষ্ণায়ন নিয়ন্ত্রণের বার্তা

গ্লোবাল ওয়ার্মিং বা বিশ্ব উষ্ণায়ন নিয়ন্ত্রণের বার্তা

বিশ্বজুড়ে জলবায়ু পরিবর্তনের জেরে যে চরম আবহাওয়া তৈরি হয়েছে, তা মানুষের কার্যকলাপকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে গিয়েছিল। এ বছর যেভাবে খরা দেখা দিয়েছে, তা ভয়াবহ বন্যা, মারাত্মক দাবানল এবং অতি প্রবল ঝড়ের বিধ্বংসী প্রভাবকেও ছাপিয়ে গিয়েছে। বিশ্বজুড়ে বিজ্ঞানারা প্রতিটি দেশের কাছে কার্বন নির্গমন কম করতে এবং গ্লোবাল ওয়ার্মিং বা বিশ্ব উষ্ণায়ন নিয়ন্ত্রণ করার বার্তা দিচ্ছেন।

সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হেনেছে বম্ব সাইক্লোন

সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হেনেছে বম্ব সাইক্লোন

সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গ্রেট লেক অঞ্চল থেকে একটি ভয়াবহ তুষার-ঝড় বম্ব সাইক্লোনের রূপ নিয়ে গ্রাস করেছে বিস্তীর্ণ এলাকাকে। মার্কিন আবহাওয়া-সম্পর্কিত ঘটনায় কমপক্ষে ৩০ জন মারা গিয়েছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এটি একটি বিরল ঘটনা। আর্কটিক থেকে নেমে আসা ঠান্ডা বাতাসের ফলেই তাপমাত্রা নেমে গিয়েছে মাইনাস ৪৮ ডিগ্রি-তে। তার ফলে তুষারের ঝড় সৃষ্টি হয়েছে।

পাকিস্তানে বাইবেলের বন্যা

পাকিস্তানে বাইবেলের বন্যা

২০২২ সালে পাকিস্তানে যে বন্যা হয়েছে, তাতে সিন্ধু প্রদেশ জলমগ্ন হয়ে পড়েছিল পুরোটা। পাকিস্তানে দেখা গিয়েছিল দানবীয় বর্ষা। এবং এই বন্যায় মৃত্যু হয়েছিল ১২০০ জনের, হাজার তিনেকেরও বেশি মানুষ আহত হন। দেশের ৩৩ শতাংশ জলের তলায় চলে যায়। স্বাভাবিকের থেকে ১০ গুণ ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছিল। প্রতি ৬ জন পাকিস্তানির মধ্যে একজন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন। প্রবল বৃষ্টি আর উপচে পড়া সিন্ধু নদী ১০০ কিলোমিটার প্রশস্ত অভ্যন্তরীণ হ্রদ তৈরি করেছিল।

ভারতের বন্যার প্রকোপ

ভারতের বন্যার প্রকোপ

পাকিস্তানের মতো সাংঘাতিক না হলেও ভারতেও কম প্রকোপ পড়েনি বন্যার। ২০২২-এ অসমের বন্যা প্রাণ কেড়ে নিয়েছিল ১৯০ জনেরও বেশি মানুষকে। এই বন্যার জলে কমপক্ষে ১৭৫টি গ্রাম এবং ৫২৭ হেক্টর কৃষি ক্ষেত তলিয়ে গিয়েছিল। এমন সাংঘাতিক বন্যা ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের পিছনে যে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব রয়েছে, তা সুস্পষ্ট।

হারিকেন ইয়ানের হানা

হারিকেন ইয়ানের হানা

এ বছরই হারিকেন ইয়ান আঘাত করেছিল কিউবায়। এটি ছিল ক্যাটাগরি-৪ ঝড়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বুকে এই সংঘাতিক ঝড় ধেয়ে আসায়, প্রায় ৫০ হাজার লোককে সরিয়ে নিতে হয়েছিল। মেক্সিকোর উষ্ণ উপসাগরে পৌঁছনোর সময় প্রতি ঘন্টায় ২০০ কিলোমিটারের বেশি ছিল এই ঝড়ের গতিবেগ। তা আর বেড়ে গিয়েছিল। উপসাগর দিয়ে বয়ে চলার সময়। এবং ফ্লোরিডায় তা আঘাত হেনেছিল প্রায় ৩০০ কিলোমিটার গতিবেগে।

হারিকেন ইয়ানের একটি প্রাথমিক সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তন পরিস্থিতির অবনতি ঘটায় এই ক্যাটাগরি-৪ টাইপের ঝড় তৈরি হচ্ছে। ১০ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে। মেক্সিকো উপসাগরের উষ্ণতা স্বাভাবিকের থেকে প্রায় ০.৪ ডিগ্রি বেশি হওয়ার কারণে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছিল।

প্রাণঘাতী দাবানলের গ্রাসে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপ

প্রাণঘাতী দাবানলের গ্রাসে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এবার দেখা গিয়েছে বড় দাবানল। প্রচণ্ড বাতাস আর খরার করাণে এই বছরের মে মাসে নিউ মেক্সিকো শহর লাস ভেগাস দাবানলের প্রকোপে পড়ে। শত শত পরিবারকে সরিয়ে নিতে হয়েছিল। অগ্নিকাণ্ডে ১ লক্ষ ২১ হাজার একরেরও বেশি জঙ্গল পুড়ে যায়। সান্তা ফে থেকে ৪৮ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে অরণ্যময় পাহাড়ে শতাব্দী প্রাচীন বসতি এবং বাড়িগুলি ধ্বংস হয়ে যায়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই দাবানল সাম্প্রতিক অতীতে এক ডজন দাবানলের মধ্যে সবথেকে ধ্বংসাত্মক ছিল। বিজ্ঞানীরা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সংঘাতিক রূপ নেয় এই দাবানল। নিউ মেক্সিকোতে ৪০ দিন ধরে দাবানল ছড়িয়ে পড়ে। ভবিষ্যদ্বাণী অনুসারে, জলবায়ু পরিবর্তন স্থলভাগে পরিস্থিতিকে আরও খারাপ করে তুলছে। ইউরোপ অন্তত ৫০০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ খরার মুখোমুখি হয়েছে। মহাদেশের দুই-তৃতীয়াংশে খরার প্রভাব পড়। এই খরা পরিস্থিতি শিপিং শিল্প, বিদ্যুৎ উৎপাদন এবং নির্দিষ্ট ফসলের ফলনকে বিপর্যস্ত করে তোলে।

ভারতে মারাত্মক তাপপ্রবাহ

ভারতে মারাত্মক তাপপ্রবাহ

২০২২ ভারতও কয়েক দশকের মধ্যে সবথেকে তীব্র তাপপ্রবাহের সম্মুখীন হয়েছিল৷ উত্তর, মধ্য এবং পূর্ব ভারতের অংশগুলি এই বছরের মার্চ-মে মাস পর্যন্ত তাপপ্রবাহের জেরে সবথেকে খারাপ পরিস্থিতির মুখে পড়ে। ২০২২ সালে মার্চের প্রথম দিকেই তাপমাত্রা বৃদ্ধি হয় ব্যাপক। মার্চ মাসে রেকর্ড করা গড় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩.১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত ১২২ বছরে আইএমডি-র রেকর্ডে তা সর্বোচ্চ।

পাক-সংকট থেকে ব্রিটেনে অস্থিরতা, ২০২২ সালের যে সব ঘটনা নাড়িয়ে দিয়েছিল বিশ্ব-রাজনীতিকেপাক-সংকট থেকে ব্রিটেনে অস্থিরতা, ২০২২ সালের যে সব ঘটনা নাড়িয়ে দিয়েছিল বিশ্ব-রাজনীতিকে

English summary
Climate disaster has paralyzed the whole World and flash back before Year Ender 2022
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X