• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

আইপিএল ২০২০ : কেকেআরের জার্সিতে এক ইনিংসে সর্বাধিক ছক্কা হাঁকানো ব্যাটসম্যানদের তালিকা

করোনা ভাইরাসের আবহে আইপিএল শুরু হতে এখনও এক মাসেরও বেশি সময় বাকি। এখন থেকেই টুর্নামেন্টের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। বাইশ গজে প্রিয় ব্যাটসম্যানদের পারফরম্যান্স দেখতে মুখিয়ে রয়েছেন ক্রিকেট প্রেমীরা। টুর্নামেন্টের অন্যতম সফল দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের জার্সিতে এক ইনিংসে সর্বাধিক ছক্কা হাঁকানো ব্যাটসম্যানদের তালিকা দেখে নেওয়া যাক।

রাজনাথের মুখ্যমন্ত্রী পদে অনীহা

রাজনাথের মুখ্যমন্ত্রী পদে অনীহা

কয়েক মাস আগে থেকেই উত্তরপ্রদেশে প্রচার শুরু হয়েছিল। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকে রাজ্যে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে তুলে ধরতে চাওয়া হয়েছিল দলের তরফে।

কারণ বিজেপির কাছে মুখ্যমন্ত্রী করার জন্য প্রথম থেকেই দুটি নাম ছিল। রাজনাথ সিং ও যোগী আদিত্যনাথ। বিজেপির প্রথম পছন্দ ছিলেন রাজনাথই। কিন্তু উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার বিষয়ে অনীহা প্রকাশ করেন রাজনাথ। তখন থেকেই আদিত্যনাথের বিষয়ে গুরুত্বের সঙ্গে ভাবা শুরু হয়।

ব্রেন্ডন ম্যাকুলাম

ব্রেন্ডন ম্যাকুলাম

২০০৮ সালে আইপিএলের প্রথম সংস্করণের প্রথম ম্যাচে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে তাদেরই মাঠে মুখোমুখি হয়েছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। ওই ম্যাচে ৭৩ বলে ১৫৮ রানের অপরাজিত এবং অতিমানবিক ইনিংস খেলেছিলেন নিউজিল্যান্ডের কিংবদন্তি ব্রেন্ডন ম্যাকুলাম। কারণ সেদিন প্রাক্তন কিউয়ি অধিনায়কের ব্যাট থেকে এসেছিল ১৩টি ছক্কা।

সমীক্ষা দেখেই সিদ্ধান্ত

সমীক্ষা দেখেই সিদ্ধান্ত

বিজেপির শীর্ষ এক নেতার কথায়, উত্তরপ্রদেশে ভোটারদের মধ্যে বিজেপির তরফে বেশ কয়েকটি সমীক্ষা চালানো হয়েছিল। প্রত্যেকটি সমীক্ষাতেই দেখা গিয়েছিল মানুষের বিচারে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার যোগ্য প্রার্থী হিসাবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের চেয়ে এক-দু পয়েন্টে এগিয়ে ছিলেন যোগী আদিত্যনাথ।

আর বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে সমীক্ষা চালিয়ে দেখা যায় মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার প্রতিযোগীয় দুজনের টক্কর কাঁটায় কাঁটায়, দুজনের মধ্যে কেউ কাউকে টপকে এগোতে পারেননি।

আন্দ্রে রাসেল

আন্দ্রে রাসেল

২০১৮ সালে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে আইপিএলের গ্রুপ ম্যাচে ৩৬ বলে ৮৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন আন্দ্রে রাসেল। সেদিন তাঁর ব্যাট থেকে ১১টি ছক্কা বেরিয়েছিল। এক বছর পর রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠ কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে ২৫ বলে ৬৫ রান করেছিলেন ক্যারিবিয়ান হার্ড হিটার। সেদিন ৯টি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন রাসেল।

চ্যালেঞ্জ নেওয়ার ক্ষমতা

চ্যালেঞ্জ নেওয়ার ক্ষমতা

উত্তরপ্রদেশের পূর্বভাগ আদিত্যনাথের কাথে শক্ত জমি। কিন্তু এই ভাগেও যেভাবে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রেখে আদিত্যনাথ ভিন্নমতের বিরুদ্ধে লড়াই করে জয় পেয়েছেন তা তাঁকে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে অতিরিক্ত পয়েন্ট দিয়েছে। বিজেপির নেতাদের কথায় আদিত্যনাথের রাজনৈতিক চ্যালেঞ্জ নেওয়ার ক্ষমতা তাকে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে শক্তিশালী প্রার্থী বানিয়েছে।

বিজেপির এক নেতার কথায়, "উত্তরপ্রদেশের সপ্তম দফার নির্বাচনে টিকিট দেওয়া নিয়ে সমস্যা হয়েছিল। একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী এই দফায় লড়ছিলেন। কিন্তু আদিত্যনাথ যেভাবে গোরখপুরে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছিলেন, বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার চালিয়েছেন, তা অভাবনীয়। আদিত্যনাথ নিজের পরিশ্রমে নিশ্চিত করেছিলেন যাতে কোনও প্রতিবাদী-বিদ্রোহী নেতা যেন ভোটে না যেতে। এই কঠিন চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করে যেভাবে যোগী জিতেছেন সেই ধরণের কোনও চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি উত্তরপ্রদেশের অন্য কোনও বিজেপি নেতাকে হতে হয়নি।"

দীনেশ কার্তিক

দীনেশ কার্তিক

২০১৯ সালের আইপিএলে ঘরের মাঠ ইডেন গার্ডেন্সে রাজস্থান রয়্যালসের মুখোমুখি হয়েছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। সেদিন কেকেআর অধিনায়ক দীনেশ কার্তিকের ব্যাট থেকে ৫০ বলে ৯৭ রানের অপরাজিত ইনিংস বেরিয়েছিল। ম্যাচে ৯টি ছক্কা হাাঁকিয়েছিলেন ডিকে।

মোদী-অমিত শাহের হাত যোগীর মাথার উপর

মোদী-অমিত শাহের হাত যোগীর মাথার উপর

আদিত্যনাথের সাদামাটা কথাবার্তা, সাধারণ জীবনযাপন পদ্ধতি সবসময়ই অমিত শাহের প্রশংসা কুড়িয়েছে। বিশেষ করে ২০১৪ সালে প্রচারের সময় যোগীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছিলেন অমিত।

এমনকী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে আদিত্যনাথের সুসম্পর্ক রয়েছে।

ক্রিস গেইল

ক্রিস গেইল

২০১০ সালের আইপিএলে কেকেআরের জার্সিতে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে ৪২ বলে ৮৮ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেছিলেন ক্রিস গেইল। ওই ম্যাচে ৮টি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি। ২০১৭ ও ২০১৯ সালে কেকেআরের জার্সিতে গুজরাত লায়ন্স ও মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে সম পরিমাণ ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন যথাক্রমে ক্রিস লিন ও আন্দ্রে রাসেল।

জাতি-বর্ণ নির্বিশেষে আদিত্যনাথের জনপ্রিয়তা

জাতি-বর্ণ নির্বিশেষে আদিত্যনাথের জনপ্রিয়তা

আদিত্যনাথের উত্থানের সবচেয়ে বড় কারণ হল জাতি-বর্ণ নির্বিশেষে তাঁর গ্রহণযোগ্যতা। এক বিজেপি নেতার কথায়, "আদিত্যনাথ সন্ন্যাসী তাই সমস্ত জাতি ধর্মের ঊর্ধ্বে। আর গোরখনাথ মন্দিরে সবচেয়ে বেশি পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর অনুগামীদের আনাগোনা। বিশেষ করে যাদব সম্প্রদায়ের। তাই আদিত্যনাথের গ্রহণযোগ্যতা পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর ক্ষেত্রে অভাবনীয়।" পাশাপাশি পূর্বাঞ্চল এলাকায় ব্রাহ্মণ নেতৃত্বের শূন্যস্থান সৃষ্টি হওয়ায় তা আদিত্যনাথের উত্থানে সাহায্য করেছে। কারণ উত্তরপ্রদেশে ব্রাহ্মণরা ঠাকুরদের থেকে বেশি শক্তিশ্লী। এবং তাদের সমর্থনও ছিল যোগীর সঙ্গে। উচ্চবর্ণ তো আদিত্যনাথের সঙ্গে ছিলই। অনগ্রসর সম্প্রদায়ও যোগীর অনুগামী। তাই জাতি বিভেদের পার্থক্য মেটানোর যে ক্ষমতা যোগীর রয়েছে তা রাজনাথ, কিংবা মনোজ সিনহা কিংবা কেশব প্রসাদ মৌর্যরও নেই।

এক ইনিংসে সাতটি ছক্কা

এক ইনিংসে সাতটি ছক্কা

কলকাতা নাইট রাইডার্সের জার্সিতে এক ইনিংসে সাতটি ছক্কা হাঁকিয়েছেন ইউসুফ পাঠান (২০১৪), নীতীশ রানা (২০১৯) ও আন্দ্রে রাসেল (২০১৯)।

সিপিএল ২০২০ : টুর্নামেন্টের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জেতা ম্যাচের তালিকা

English summary
IPL 2020 : List of the KKR batsmen who have most sixes in one innings news in bengali
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X