• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

৩৬০ রান তুলেও বিস্ময়কর হার! ৩টি বিশ্বরেকর্ড করলেন ক্যরিবিয়ানরা, ১টি করলেন ইংরেজরাও

বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ইংল্যান্ড প্রথম ওডিআই ম্যাচে বার্বাডোসের পিচ ছিল ব্যাটসম্যানদের স্বর্গরাজ্য। দুইদলের ব্যাটসম্যানরাই ইচ্ছেমতো হাতের সুখ করলেন। টসে জিতে ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন। ধীরে শুরু করলেও শেষভাগে একেবারে পঞ্চম গিয়ারে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ৩৬০ রান তুলেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষা হল না।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেই একেবারে নিজস্ব ভঙ্গিমায় ইনিংস সাজালেন ক্রিস গেইল। প্রথম ১২ রান নিলেন সিঙ্গলস নিয়ে, প্রথম পাওয়ার প্লে-তেও একটিও বাইন্ডারি মারলেন না। তারপর ধীরে ধীরে একের পর এক বল ওড়ালেন বাউন্ডারির ওপাড়ে। মোট ১২টি ছয় মেরে করলেন ১২৯ বলে ১৩৫। যথাযথ সঙ্গত দিলেন শাই হোপ (৬৫ বলে ৬৪) ব্রাভো (৩০ বলে ৪০), অ্যাশলি নার্স (৮ বলে ২৫)-রা।

এর জবাবটাও একই ভাবে ফিরিয়ে দিলেন ইংরেজ ব্যাটসম্যানরাও জেসন রয় (৮৫ বলে ১২৩) ও জো রুট (৯৭ বলে ১০২) দুটি দারুণ শতরানের ইনিংস খেললেন। ৫১ বলে ৬৫ রান করলেন অধিনায়ক ইয়ন মর্গানও। ৪৮.৪ ওভারে মাত্র ৪ উইকেট হারিয়েই জয়ের রানটা টপকে যায় ইংল্যান্ড।

ক্রিকেট সংখ্যার খেলা। আর যেই ম্যাচে দুই ইনিংস মিলিয়ে মোট ৭২৪ রান উঠল, সেই ম্যাচে রেকর্ড বইয়ে এই সংখ্যার নড়াচড়া তো হবেই। হারলেও ৩টি বিশ্বরেকর্ড করলেন ক্যারিবিয়ানরা। একটি রেকর্ড করল ইংরেজ দলও।

রোহিতকে টপকে সেঞ্চুরি গেইলের

রোহিতকে টপকে সেঞ্চুরি গেইলের

এই ম্যাচের আগে কোনও এক দেশের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি ছয় মারার রেকর্ড ছিল ভারতের রোহিত শর্মার হাতে। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিনি ৩ ধরণের ক্রিকেট মিলিয়ে মোট ৮৯টি ছয় মেরেছেন। কিন্তু এই ম্যাচে ক্রিস গেইল প্রথম দুই ছয় মেরে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে মোট ৯০টি ছয় মেরে রোহিতকে টপকে যান। আর তারপর আরও ১০ ছয় মেরে ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে এক প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ১০০টি ছয় মারার রেকর্ড করেন।

ক্যারিবিয়ানদের ছক্কা-প্রীতি

ক্যারিবিয়ানদের ছক্কা-প্রীতি

ক্যারিবিয়ানরা ছয় মারতে ভালবাসেন, সাবই জানে। তার প্রমাণ আরও একবার পাওযা গিয়েছে এই ম্যাচে। গেইলের ১২টি ছয়ের পাশাপাশি, ব্রাভো ছক্কা মারেন ৪টি, নার্স ৩টি। এছাড়া, ক্যাম্পবেল, হোপ, হেতমায়ার ও বিশুও ১টি করে ছয় মারেন। ফলে ইনিংসে ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানদের মোট ছয়ের সংখ্যা দাঁড়ায় ২৩। এর ফলে ওডিআই-তে এক ইনিংসে দল হিসেবে সবচেয়ে বেশি ছয়ের রেকর্ড এল ওয়েস্ট ইন্ডিজের দখলে। এক আগের রেকর্ড ছিল নিউজিল্যান্ডের। ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধেই ২০১৪ সালে কিউই দল ২২টি ছয় মেরেছিল। কোরি অ্য়ান্ডারসন একাই ১৪টি ছয় মারেন।

আফ্রিদি পড়লেন পিছনে

আফ্রিদি পড়লেন পিছনে

এতদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৩ সংস্করণ মিলিয়ে মোট ৪৭৬টি ছয় মেরে সবচেয়ে বেশি ছয় মারার তালিকায় শীর্ষস্থানে ছিলেন প্রাক্তন পাক অলরাউন্ডার শাহিদ আফ্রিদি। এদিনের ১২টি ছয় নিয়ে গেইলের ছক্কার সংখ্যা হল ৪৭৭। ফলে আফ্রিদিকে পিছনে ফেলে তিনিই উঠে এলেন তালিকার শীর্ষে।

একটি ব্রিটিশ রেকর্ড

একটি ব্রিটিশ রেকর্ড

ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্য়ানরা তিনটি বিশ্বরেকর্ড করেও দলকে জেতাতে পারলেন না। আর এই ম্য়াচ জিতেই একটি রেকর্ড করলেন ইংরেজ ব্য়াটসম্যানরাও। ওয়েস্ ইন্ডিজের ৩৬০ রানের জবাবে তারা করল ৪ উইকেটে ৩৬৪। এটিই তাদের সবচেয়ে বড় রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড।

English summary
West Indies have been defeated by England in the 1st ODI, but the Caribbeans have registered 3 world records.
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X