• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ইডেনের মিউজিয়ামে এবার ধোনির ক্রিকেটীয় সরঞ্জাম রাখার পরিকল্পনা সিএবি'র

  • |

ফ্যানেদের অবাক করে স্বাধীনতা দিবসের সন্ধ্যেতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন ধোনি। এরপর থেকে মাহিকে ঘিরে ফ্যানেদের মধ্যে আবেগের সুনামি! বিশ্বকাপ থেকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, ধোনির নেতৃত্বে ভারতীয় দলের ক্যাবিনেট মণিমুক্তোয় ভরা ছিল। সেই ধোনি হঠাৎ করে কোন ফেয়ালওয়াল ছাড়া অবসর ঘোষণা করা দেওয়ায়, পরবর্তী সময়ে তাঁকে বিভিন্ন মহল থেকে সম্মানিত করার ভাবনা চিন্তা চলছে। এই ভাবনায় বাদ যাচ্ছে না ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গ (সিএবি)।

৬৬ কোটির বেশি মানুষের জলের অভাব

৬৬ কোটির বেশি মানুষের জলের অভাব

সারা পৃথিবীতে ৬৬.৩ কোটি মানুষ নিরাপদ পানীয় জলের অভাবে ভুক্তভোগী। এত সংখ্যক মানুষের বাড়ির কাছাকাছি পানীয় জলের কোনও ব্যবস্থা নেই।

ক্রিকেটের নন্দনকানন ইডেনের সঙ্গে ধোনির স্মৃতি

ক্রিকেটের নন্দনকানন ইডেনের সঙ্গে ধোনির স্মৃতি

ক্রিকেটের নন্দনকানন ইডেনে ধোনিকে নিয়ে অনেক স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে। জাতীয় দলের হয়ে অনেকবার ইডেন মাতিয়ে মাহি। ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টে এই ইডেনে ১৩২ নটআউট ছিলেন। কেরিয়ারের শুরুতে ইডেনে বহু ম্যাচ খেলেছেন। কলকাতায় স্থানীয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট পি সেন ট্রফিতে শ্যামবাজারের হয়ে খেলতে এসেছিলেন ধোনি। দুরন্ত ব্যাটিংয়ে ২০০ রান করেছিলেন।

ব্যবহারযোগ্য জলের ঘাটতি

ব্যবহারযোগ্য জলের ঘাটতি

পৃথিবীর মোট তিন ভাগ জল ও একভাগ স্থল। এমনটা আমরা ছোট থেকেই বইয়ের পাতায় পড়ে এসেছি। তবে সেই জলের কতটা ব্যবহারযোগ্য তা আমরা অনেকেই জানি না। ফলে নদী, খাল, বিল, সাগর, সমুদ্রে প্রচুর জল থাকলেও তার সমস্তটা ব্যবহারযোগ্য নয়।

ইডেনে ক্রিকেটারদের স্মারক নিয়ে মিউজিয়াম

ইডেনে ক্রিকেটারদের স্মারক নিয়ে মিউজিয়াম

ইতিমধ্যে ক্রিকেটারদের বিভিন্ন স্মারক নিয়ে ইডেনে একটি মিউজিয়াম তৈরি হয়েছে। সেখানেই এবার ধোনির ক্রিকেটীয় সরঞ্জাম রেখে দেওয়ার পরিকল্পনা সিএবি'র।

মাত্র ১ শতাংশ জল পানীয়যোগ্য

মাত্র ১ শতাংশ জল পানীয়যোগ্য

দেখা গিয়েছে, পৃথিবীর মোট জলের ৯৭ শতাংশ হল সমুদ্রের নোনা জল। ফলে তা পানযোগ্য নয়। বাকী তিন শতাংশের মধ্যে ২ শতাংশ বরফ হয়ে হিমবাহ বা অন্য জায়গায় জমে রয়েছে। ফলে সারা পৃথিবীর মানুষের ব্যবহারের জন্য রয়েছে শুধুমাত্র ১ শতাংশ জল।

ইডেনে ধোনিকে সংবর্ধনা

ইডেনে ধোনিকে সংবর্ধনা

অতীতে ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতের ম্যাচে সিএবির পক্ষ থেকে ভারতীয় ক্রিকেটে মহেন্দ্র সিংহ ধোনির অবদানের জন্য প্রাক্তন অধইনায়ককে সংবর্ধনা জানানো হয়েছিল। ১৯৮৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ী কপিল দেব ধোনির হাতে স্মারক তুলে দিয়েছিলেন।

বিয়ার তৈরিতে লাগে প্রচুর জল

বিয়ার তৈরিতে লাগে প্রচুর জল

বিয়ার তৈরিতে প্রচুর জল লাগে। এতে প্রয়োজনীয় সামগ্রীতে যেমন জল গালে তেমনই এক পাঁইট বিয়ার তৈরিতে ২০ গ্যালন জল লাগে বল জানা গিয়েছে। ফলে কম পরিমাণ জল অপচয় হয় তা অবর্ণনীয়।

ধোনির স্মৃতি সংগ্রহের পরিকল্পনা

ধোনির স্মৃতি সংগ্রহের পরিকল্পনা

এবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের পর ধোনির স্মৃতি সংগ্রহ করতে রাখতে চাইছে সিএবি। আপতত ধোনির ব্যবহার করা ক্রিকেট সরঞ্জামই সংগ্রহে রাখা হবে বলে জানা গিয়েছে।

প্রশান্ত মহাসাগরে অর্ধেক জল ধরা রয়েছে

প্রশান্ত মহাসাগরে অর্ধেক জল ধরা রয়েছে

অতলান্তিক মহাসাগর সারা পৃথিবীর মোট সামুদ্রিক জলের ২৩ শতাংশ ধারণ করে রেখেছে। এদিকে প্রশান্ত মহাসাগরে মোট জলের ৪৮ শতাংশ রয়েছে বলে গবেষণায় উঠে এসেছে। অতলান্তিক মহাসাগরের চেয়ে এক চা চামচ জলে বেশি অনু রয়েছে বলে গবেষকরা জানিয়েছেন।

মজার তথ্য

মজার তথ্য

একটি উঁট ১০ মিনিটে ৩৫ গ্যালন জল পান করতে পারে। উঁট বহুদিন জল না খেয়ে বাঁচতে পারে বলে জানা যায়। তবে কিছু ইঁদুরের প্রজাতি রয়েছে যারা উঁটের চেয়েও বেশিদিন জল না খেয়ে বাঁচতে পারে। রঙীন মাছের মধ্যে জনপ্রিয় গোল্ডফিস নিয়ে গবেষণায় অভিনব তথ্য সামনে এসেছে। জানা গিয়েছে, গরম জলের চেয়ে ঠান্ডা জলে এই মাছের স্মৃতি বেশি ভালো থাকে।

নদীর চেয়ে পরিবেশে জল বেশি রয়েছে

নদীর চেয়ে পরিবেশে জল বেশি রয়েছে

সারা পৃথিবীতে সমস্ত নদী মিলিয়ে যে পরিমাণ জল রয়েছে তার চেয়ে বেশি জল মজুত রয়েছে পরিবেশে, হাওয়ায়। যদি পরিবেশে মিশে থাকা সমস্ত জলকণা একসঙ্গে বৃষ্টি আকারে ঝরে পড়ে তাহলে পৃথিবীর সমস্ত জায়গা গড়ে এক ইঞ্চি জলে ডুবে যাবে।

জলের অপচয়

জলের অপচয়

একটি সাধারণ নল দিয়ে মিনিটে ২ গ্যালন করে জল বের হয়। প্রতিদিন দাঁত ব্রাশ করার সময়ে কলের মুখ বন্ধ করে রাখলে ফি দিন আপনি চার গ্যালন করে জল বাঁচাতে পারেন। এমনকী বিভিন্ন পাবলিক টয়লেটে দিনে গড়ে ২০০ গ্যালন করে জল নষ্ট হয় বলেও দেখা গিয়েছে।

কোটি কোটি মানুষ দূষিত জল পান করে

কোটি কোটি মানুষ দূষিত জল পান করে

সারা পৃথিবীতে ২৫০ কোটি মানুষ উন্নত শৌচাগারের সুবিধা ভোগ করেন না। ফলে তাদের জলকষ্ট রয়েছে তা আর আলাদা করে বলে দিতে হবে না। এছাড়া ১৮০ কোটি মানুষ দূষিত জল পান করে বেঁচে রয়েছেন। ফলে ডায়রিয়া, কলেরার মতো রোগের প্রকোপ বেড়ে যায়।

জল অপচয়ে একনম্বরে আমেরিকা

জল অপচয়ে একনম্বরে আমেরিকা

জল খরচে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রবাসী। প্রতিদিন একজন আমেরিকাবাসী গড়ে ১০০ গ্যালন জল ব্যবহার করে। সেখানে ইউরোপীয়রা গড়ে ৫০ গ্যালন, সাব সাহারন আফ্রিকার বাসিন্দারা মাত্র ২-৫ গ্যালন জল জনপ্রতি ব্যবহার করতে পারেন।

জল জোগাড়ে ব্যস্ত থাকে মহিলারা

জল জোগাড়ে ব্যস্ত থাকে মহিলারা

ভারতের মতো অন্য উন্নয়নশীল দেশে মূলত মহিলা বা মেয়েরা জল জোগাড়ের কাজ করেন। সারাদিনের এক চতুর্থাংশ সময়ই এই কাজে অতিবাহিত করেন তাঁরা।

নোংরা জল ব্যবহার করে লাখো মানুষের মৃত্যু

নোংরা জল ব্যবহার করে লাখো মানুষের মৃত্যু

প্রতিবছর নোংরা জল ব্যবহার করে ও শৌচাগারের অভাবে সারা বিশ্বে ৮ লক্ষ ৪২ হাজার মানুষ মারা যান। সারা বিশ্বে বিশুদ্ধ জল ও শৌচাগারের ব্যবহার সঠিক হলে মোট রোগ ৯.১ শতাংশ হারে কমবে। এবং সবমিলিয়ে মৃত্যুর হার ৬.৩ শতাংশ হারে কমবে।

আইপিএল ২০২০ : ড্রিম ইলেভেনকেই টাইটেল স্পনসর বলে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা বিসিসিআইয়ের

English summary
Cab wants to store ms dhoni's cricketing kits at eden gardens Museum
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X