• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

শাহরুখের জন্মদিনে তাঁর সিনেমার জনপ্রিয় ১০টি সংলাপ, যা আজও ভোলার নয়

টোল পরা গালের মুচকি হাসি বা দু’‌হাত প্রসারিত করে কাছে ডাকার ইঙ্গিত, তাতেই নব্বই দশক থেকে এ প্রজন্মের মেয়েরা সকলেই পাগল একজনের জন্য, তিনি হলেন শাহরুখ খান। এসআরকে মানেই রোম্যান্টিকতার চূড়ান্ত জায়গা। শ্যামবর্ণা শাহরুখ খান ঘুম কেড়েছে বহু তরুণীর, সোমবার তাঁরই জন্মদিন। বলিউড সুপারস্টারের ছবির সংলাপ সবসময়ই দর্শকদের মনে আলাদা জায়গা করে নিয়েছে। সেরকমই কিছু ১০টি সেরা সংলাপ দেখে নেওয়া যাক।

ডর (‌১৯৯৩)‌

ডর (‌১৯৯৩)‌

১৯৯৩ সালে শাহরুখ খান-জুহি চাওলা ও সানি দেওল অভিনীত ডর ছবিটি মুক্তি পায়। এখানে শাহরুখ নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। যিনি কিরণ (‌জুহি চাওলা)‌ নামের মেয়ের প্রেমে পাগল ও আচ্ছন্ন হয়ে ছিলেন। যা রাহুলকে জীবনের ভয়, মৃত্যু থেকে অনেক দূরে নিয়ে গিয়েছিল। এই ছবিরই বিখ্যাত সংলাপ ছিল শাহরুখের মুখে, ‘‌সচ্চি মহাব্বত কো পেহচাননে কে লিয়ে আখোঁ কি নেহি, দিল কি জরুরত হোতি হ্যায়'‌।

 বাজিগর (‌১৯৯৩)

বাজিগর (‌১৯৯৩)

১৯৯৩ সালে শাহরুখের আরও একটি হিট ছবি বাজিগরের একটি বিখ্যাত সংলাপ, যা আজও চিরস্মরণীয়, তা হল ‘‌কভি কভি জিতনে কে লিয়ে হারনা ভি পরতা হ্যায়, অউর হার কে জিতনে ওয়ালে কো বাজিগর কহতে হ্যায়।'‌ দারুণ এবং অনুপ্রাণিত করা সংলাপ। এই ছবিতে শাহরুখ ছাড়াও ছিলেন কাজল ও শিল্পা শেঠি।

দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে (‌১৯৯৫)‌

দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে (‌১৯৯৫)‌

১৯৯৫ সালে মুক্তি পাওয়া দিলওয়ালে দুলহানিয়া সম্প্রতি ২৫ হিন্দি সিনেমা জগতে তাদের ২৫ বছর সম্পূর্ণ করল। এই সিনেমার বেশ কিছু সংলাপ জনপ্রিয় হয়েছিল যার মধ্যে অন্যতম, ‘‌বড়ে বড়ে শহরো মে অ্যায়সি ছোটি ছোটি বাতে হোতি রহতি হ্যয়, সেনোরিটা।'‌

 দিল তো পাগল হ্যায় (‌১৯৯৭)‌

দিল তো পাগল হ্যায় (‌১৯৯৭)‌

মাধুরি দীক্ষিত ও করিশ্মা কাপুর অভিনীত শাহরুখের দিল তো পাগল হ্যয় আরও একটি জনপ্রিয় ছবি। এই ছবির বিখ্যাত সংলাপ হল, ‘‌রাহুল, নাম তো শুনা হোগা?‌'‌

কুছ কুছ হোতা হ্যায় (‌১৯৯৮)‌

কুছ কুছ হোতা হ্যায় (‌১৯৯৮)‌

শাহরুখ-কাজল ও রাণি মুখার্জি অভিনীত কুছ কুছ হোতা হ্যয়-এর বিখ্যাত সংলাপটি হল ‘‌হাম এক বার জিতে হ্যায়, এক বার মরতে হ্যায়, শাদি ভি এক বার হোতি হ্যায়, অউর প্যায়ার এক বার হি হোতি হ্যায়।

দেবদাস (‌২০০২)‌

দেবদাস (‌২০০২)‌

শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘‌দেবদাস'‌ উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন শাহরুখ খান। ঐশ্বর্য রাই ও মাধুরী দীক্ষিতকে দেখা গিয়েছে এই ছবিতে। এই সিনমায় শাহরুখের কন্ঠে ছবির বিখ্যাত সংলাপ, ‘‌বাবুজি নে কাহা গাঁও ছোড় দো, সব নে কাহা পারো কো ছোড় দো, পারো নে কাহা শরাব ছোড় দো, আজ তুমনে কহ দিয়া হাভেলি ছোড় দো, এক দিন আয়েগা জব ওহ কহেঙ্গে, দুনিয়া ছোড় দো।'‌

ওম শান্তি ওম (‌২০০৭)‌

ওম শান্তি ওম (‌২০০৭)‌

নিজের প্রেমিকাকে একটু মুগ্ধ করার জন্য অনেকেই ওম শান্তি ওমের এই সংলাপটি বলে থাকেন। সেটি হল, ‘‌ইতনি সিদ্দত সে ম্যায়নে তুমহে পানে কি কোশিস কি হ্যায়, কে হর জর্রে নে মুঝে তুমসে মিলানে কি কোশিস কি হ্যায়। কহতে হ্যায় অগর কিসি চিজ কো দিল সে চাহো, তো পুরি কায়েনাথ তুমহে উসসে মিলানে কি কোশিস মে লগ জাতে হ্যায়।'‌

মাই নেম ইজ খান (‌২০১০)‌

মাই নেম ইজ খান (‌২০১০)‌

শাহরুখ-কাজল অভিনীত মাই নেম ইস খানের দারুণ এক জনপ্রিয় লংলাপ হল ‘‌মাই নেম ইজ খান অ্যান্ড আই অ্যাম নট অ্যা টেররিস্ট।'‌

চেন্নাই এক্সপ্রেস (‌২০১৩)‌

চেন্নাই এক্সপ্রেস (‌২০১৩)‌

এই সিনেমায় দর্শকদের প্রিয় সংলাপ হল ‘‌ডোন্ট আন্ডারএস্টিমেট দ্য পাওয়ার অফ অ্যা কমন ম্যান।'‌

অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল (‌২০১৬)‌

অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল (‌২০১৬)‌

রনবীর কাপুর-অনুষ্কা শর্মা অভিনীত এই ছবিতে শাহরুখ খান ক্যামিও চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তাঁর একটি বিখ্যাত সংলাপ হল, ‘‌এক তরফা প্যায়ার কি তাকত হি কুছ অউর হোতি হ্যায়, অউরো কি রিস্তো কি তরহা ইয়ে দো লোগো মে নহি বাট তি, সির্ফ মেরা হক হ্যায় ইস পে।'‌

রইস (‌২০১৭)‌

রইস (‌২০১৭)‌

রইসের জনপ্রিয় সংলাপ হল যা আমাদের কাজের প্রতি সম্মান করতে শেখায় তা হল, ‘‌কোই ধান্ধা ছোটা নেহি হোতা অউর ধান্ধে সে বড়া কোই ধরম নেহি হোতা।'‌

English summary
10 unforgettable dialogues from sha rukh khan
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X