• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts
Oneindia App Download

আবারও 'বাড়ি থেকে কাজ', নতুন বছরেও করোনা পিছু ছাড়ছে না

আবারও 'বাড়ি থেকে কাজ', নতুন বছরেও করোনা পিছু ছাড়ছে না
  • |
Google Oneindia Bengali News

বর্ষবরণ, নতুন বছরের আনন্দ উধাও। নতুন বছরের শুরু থেকেই বাড়ছে কোভিড সংক্রমণ। বিশেষজ্ঞদের একটা বড় অংশের মতে, শীঘ্রই তৃতীয় ঢেউ ধেয়ে আসছে ভারতের দিকে। যথারীতি করোনা রুখতে আংশিক লকডাউন, নাইট কার্ফু সহ একাধিক বিধিনিষেধ আরোপ করেছে রাজ্যগুলি। এমতাবস্থায় প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি ২০২০, ২০২১ এর মতো এই বছরও বাড়ি বসেই কাজ করতে হবে?

কী বলছে রাজ্য সরকার?

কী বলছে রাজ্য সরকার?

সোমবার সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সচিব স্তরের নীচে ৫০ শতাংশ কর্মচারী নিয়ে চলবে দফতরগুলি। যে সমস্ত মহিলারা গর্ভবতী, যে সমস্ত কর্মীরা বিশেষভাবে সক্ষম, তাদের কর্মক্ষেত্রে উপস্থিত হতে হবে না বলেও জানানো হয়েছে৷ নির্দেশিকায় স্পষ্ট লেখা রয়েছে, 'কোভিড সংক্রমণ বাড়ার প্রাথমিক পর্যায়ে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের হাজিরার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ৩১ তারিখ অবধি এই সিদ্ধান্তগুলি নেওয়া হয়েছে।'

৫০ শতাংশ কর্মী নিয়ে কাজ!

৫০ শতাংশ কর্মী নিয়ে কাজ!

সরকারের উপদেশ, সচিব স্তরের অধঃস্তন কর্মচারীদের ক্ষেত্রে প্রতিদিন ৫০ শতাংশ হাজিরায় দফতর চালাতে হবে৷ বাকি ৫০ শতাংশ কর্মী বাড়ি থেকে কাজ করবেন। রোস্টারের মাধ্যমে অফিস কর্তৃপক্ষ কাজের বণ্টন করবে। সচিব কিংবা তার উর্ধ্বতন সমস্ত পদের আধিকারিকদের স্বাভাবিকভাবেই কাজে আসতে হবে। বিশেষভাবে সক্ষম এবং গর্ভবতী নারীদের কর্মক্ষেত্রে আসার প্রয়োজন নেই৷ তারা বাড়ি থেকে কাজ করবেন।

সময় ভাগ করে অফিস!

সময় ভাগ করে অফিস!

আলাদা আলাদা সময়ে কর্মীরা অফিসে আসবেন। সকাল ৯- বিকেল সাড়ে ৫ টা অবধি একদল এবং অপর দল সকাল ১০ টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা অবধি কাজ করবেন। কন্টেনমেন্ট জোনে যে সমস্ত আধিকারিকদের বাড়ি, তাদের অফিসে আসার কোনও প্রয়োজন নেই। কন্টেনমেন্ট জোনের বিধিনিষেধ উঠলে তাঁরা অফিসে যেতে পারবেন৷ প্রত্যেক কর্মচারী তথা আধিকারিকদের স্বাস্থ্যবিধি পালন করতে হবে৷ প্রতিনিয়ত অফিস পরিস্কার তথা সেখানের আসবাব স্যানিটাইজড রাখতে হবে। অফিসের দায়িত্বপ্রাপ্তদের এটা নজরে রাখতে হবে যাতে করিডোর বা অন্যত্র জমায়েত না হয়।

বেসরকারি সেক্টরে 'ওয়ার্ক ফ্রম হোম' কালচার!

বেসরকারি সেক্টরে 'ওয়ার্ক ফ্রম হোম' কালচার!

এ তো গেল সরকারি দফতরের কথা। দ্বিতীয় ঢেউয়ের শেষে টিসিএস, ইনফোসিসের মতো বেসরকারি সংস্থাগুলি সমস্ত কর্মীদের অফিসে ফেরানোর ইচ্ছাপ্রকাশ করেছিল। তবে এখন সেই সম্ভাবনা বিশ বাঁও জলে। স্বাস্থ্যমন্ত্রক সমস্ত বেসরকারি সংস্থাগুলিকে উপদেশ দিয়েছে, তারা যাতে ওয়ার্ক ফ্রম হোমই জারি রাখে।

English summary
the joy of the new year is gone, Covid infection has been on the rise since the beginning of the new year, According to a large section of experts, a third wave is already starts in India, States have imposed a number of restrictions, including partial lockdowns and night curfews, to prevent corona as usual.
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X