Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

‘বুদ্ধি খরচ করুন’, নদিয়ায় প্রশাসনিক বৈঠকে পুলিশকে নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রী মমতার

Subscribe to Oneindia News

নদিয়া, ৫ মে : আইনশৃঙ্খলা নিয়ে ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কড়া বার্তা দিলেন নদিয়া জেলা প্রশাসনকে। শুক্রবার তাহেরপুর ও হাসখালির ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, কেন নদিয়ায় খুনের ঘটনা বাড়ছে? কেন অপরাধীরা ধরা পড়ছে না? জেলা পুলিশের ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করে পুলিশকে বুদ্ধি খরচ করার পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। পুলিশ প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, এবার আর বসে থাকলে হবে না। এলাকায় বের হন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় বুদ্ধি খরচ করুন।[গরমে মমতার দাওয়াই 'রাতে রক্তদান' ]

এই মর্মে তিনি জেলাশাসককে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন। নদিয়া জেলা প্রশাসনিক বৈঠকে তিনি অভিযোগ করেন, টাকা দিয়ে হিংসা ছড়ানো হচ্ছে। সেই জন্য চোখ কান খোলা রাখতে হবে। কিন্তু পুলিশ তা মোকাবিলা করতে ব্যর্থ। জেলায় অপরাধ বাড়ছে। এইসব ঘটনা বিডিওদেরও লক্ষ্য রাখতে হবে বলে নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, অফিসে বসে না থেকে বিডিওরাও রাস্তায় বের হন। এলাকার খোঁজখবর রাখুন।

‘বুদ্ধি খরচ করুন’, পুলিশকে বললেন মমতা

রানাঘাট বেসরকারি হাসপাতালে রোগী মৃত্যু নিয়েও তিনি কড়া মনোভাব ব্যক্ত করেন। বলেন, অবিলম্বে এই ঘটনায় তদন্ত শেষ করতে হবে। কেন তদন্তে এতদিন অগ্রগতি হয়নি তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মমতা। সেইসঙ্গে তিনি বলেন, সীমান্তবর্তী এলাকার আইনশৃঙ্খলায় আরও সক্রিয় হতে হবে পুলিশ-প্রশাসনকে।

এদিন উন্নয়ন প্রশ্নেও প্রতিটি দফতর ধরে ধরে পর্যালোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। তার মধ্যে ১০০ দিনের কাজ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সমন্বয়ের অভাব ঘটছে। তাই একশো দিনের কাজে গতি নেই। এদিন মায়াপুর-নবদ্বীপে পর্যটন ব্যবস্থা আরও উন্নয়ন পরিকল্পনার কথা জানান মুখ্যমন্ত্রী। সেইসঙ্গে বলেন, নবদ্বীপে হেরিটেজ টাউন হবে।

কিষাণ বাজার ব্যবসায়ীদের পুনর্বাসন দেওয়া হবে। কল্যাণীতে হোসিয়ার পার্ক, নবদ্বীপের তাঁতের জন্য হাব তৈরির পরিকল্পনার কথাও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। সীমান্ত বাণিজ্য নিয়েও এদিন আলোচনা হয় পর্যালোচনা বৈঠকে।

English summary
To minimize crime, be efficient while working, Mamata Banerjee told Nadia police
Please Wait while comments are loading...