Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

পর পর দুই আগুন হাওড়ায়, একই দিনে জুটমিলের পর বিধ্বংসী আগুন লাগল ফোরশোর রোডের শিল্পকেন্দ্রে

Subscribe to Oneindia News

কলকাতা, ৮ ডিসেম্বর : এক আগুনের রেশ কাটতে না কাটতেই রাস্তার উল্টোদিকের কারখানায় ফের আগুন। পর পর দুই বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছাই দুটি কারখানা। হাওড়ার শিবপুরের ফোর্ট উইলিয়াম জুটমিলের একাংশ ভস্মীভূত হয়ে যাওয়ার পর ফোরশোর রোডের কাপড়ের কারখানায় ভয়াবহ আগুন লাগে বৃহস্পতিবার দুপুরে।দমকলের ১৫টি ইঞ্জিন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন লাগার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান দমকলমন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়, মন্ত্রী অরূপ রায়, কাউন্সিলর শ্যামল মিত্র।

সকাল সাড়ে ন'টা নাগাদ প্রথম আগুন লাগে শিবপুরের ফোরশোর রোডের জুটমিলের ডিজেল রুমে। সেই আগুন নিমেষেই ছড়িয়ে পড়ে কারখানায়। পাট-সহ বহু দাহ্য পদার্থ মজুত থাকায় দাউ দাউ আগুনের গ্রাসে চলে যায় জুটমিলের গোটা স্টোররুম।দমকলের পাঁচটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। 

পর পর দুই আগুন হাওড়ায়, একই দিনে জুটমিলের পর বিধ্বংসী আগুন লাগল ফোরশোর রোডের শিল্পকেন্দ্রে

সেই আগুন নেভার আগেই ফোরশোর রোডের ঠিক উল্টোদিকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল সেন্টারে আগুন লাগে। ওই শিল্পকেন্দ্রে একাধিক কারখানা রয়েছে। একটি কাপড়ের কারখানায় আগুন লাগার পর তা ক্রমেই ছড়িয়ে পড়তে থাকে।

হাওড়া ফোরশোর রোডের ধারে এই জুটমিল সামনেই গঙ্গা হওয়ায় জলের জোগান পেতে কোনও সমস্যা হয়নি দমকল কর্মীদের। খুব তাড়াতাড়ি দমকল পৌঁছে যাওয়ায় আর জলের জোগান মজুত থাকায় আগুন অ্যারেস্ট করা গিয়েছে খুব সহজেই। দমকল ও পুলিশ সূত্র জানা গিয়েছে কোনও হতাহতের খবর নেই।

জুটমিলে যখন আগুন লাগে, তখন মর্নিং শিফটের কাজ শেষ করে ডে শিফটের কাজ শুরু হচ্ছিল। সেইসময়ই কারখানার কর্মীরা দেখেন ডিজল রুম থেকে ধোঁয়া বের হতে। সঙ্গে সঙ্গেই দমকলে খবর দেওয়া হয়। কর্মীরও হাত লাগান আগুন নেভাতে। বালতি করে জল ছিটিয়ে আগুন প্রশমিত করার চেষ্টা চালানো হয়। আগুন ছড়িয়ে পড়ে স্টোর রুমে। অদ্যাবধি পরেই দমকল এসে পড়ায় আগুন খুব বেশি এলাকায় ছড়িয়ে পড়তে পারেনি। স্টোর রুমের একাংশ ক্ষতি হয়েছে।

দমকলকর্মীরা যখন আগুন নেভাতে ব্যস্ত জুটমিলে, তখন ২০০-৩০০ মিটার দূরে ওই ইন্ডাস্ট্রিয়াল সেন্টারে আগু লেগে যায়। নিমেষেই সেই আগুন ভয়াবহ রূপ নেয়। চটজলদি দমকল এনেও আগুনকে বশ মানানো যায়নি। শেষপর্যন্ত ১৫টি ইঞ্জিনের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এই ঘটনায় অন্তর্ঘাতের আশঙ্কা রয়েছে।

কী কারণে এই আগুন লাগল, তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লাগতে পারে বলে প্রাথমিক তদন্তে মনে করছেন দমকল আধিকারিকরা। কারখানায় অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা যথাযথ ছিল কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

English summary
series of fire at howrah, after jute mill, devstating fire at industrial center
Please Wait while comments are loading...