Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

জট কাটিয়ে সোমবারই রাজ্যে আনা হচ্ছে উদয়ন দাসকে, কাল আদালতে পেশ

Subscribe to Oneindia News

বাঁকুড়া, ৬ ফেব্রুয়ারি : জট কাটিয়ে সোমবারই রাজ্যে আনা হচ্ছে সিরিয়াল কিলার উদয়ন দাসকে। তবে এদিন আর তাকে বাঁকুড়া আদালতে তোলা সম্ভব হবে না। ট্রানজিট রিমান্ডের কাগজ সঠিক সময়ে জমা না পড়ায় বিমানে তাকে তোলা নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়। পরে সেই সমস্যার জট কাটাতে দেরি হয়ে যায়।[আকাঙ্খার আগে নিজের বাবা-মাকেও খুন করেছে উদয়ন, দাবি ভোপাল পুলিশের]

সোমবার সকাল সাড়ে ন'টার বিমানে তার কলকাতায় আসার কথা ছিল ইন্ডিগোর বিমানে। কিন্তু তা সম্ভব হয়নি। বিকেলে তার বিমানেই ফেরার কথা কলকাতায়। তারপর দমদম বিমানবন্দর থেকে তাকে নিয়ে যাওয়া হবে বাঁকুড়ায়। আগামীকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার তাকে আদালতে পেশ করা হবে। তাকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার আবেদন জানাবেন তদন্তকারীরা।[২০১০ সালে বাবা-মাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছিল উদয়ন, খুনের মোটিভ চমকে দেওয়ার মতো]

জট কাটিয়ে সোমবারই রাজ্যে আনা হচ্ছে উদয়ন দাসকে, কাল আদালতে পেশ

বাঁকুড়ার বাসিন্দা আকাঙ্খা শর্মার নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা থেকে তাঁকে নৃশংস খুন করে মেঝেয় পুতে দেওয়া- মূল মামলাটি তাই বাঁকুড়া থানাতেই। সেই কারণেই বাঁকুড়া আদালতে পেশ করার তোড়জোড় সিরিয়াল কিলার উদয়ন দাসকে। আকাঙ্খার পরিবারের অভিযোগ, তাঁদের মেয়ে স্বেচ্ছায় চলে যায়নি, তাকে অপহরণ করে খুন করা হয়েছে। তারপর মধ্যপ্রদেশের সাকেতনগরে নিজের বাড়ির মেঝেতে তাঁর দেহ পুতে দেয় উদয়ন।[শহরের আতঙ্ক এবার 'ফেসবুক কিলার'!]

পরে জেরায় সিরিয়াল কিলার উদয়ন তা স্বীকারও করে নিয়েছে বলে দাবি তদন্তকারী অফিসারদের। সেই মতোই রাজ্যের তদন্তকারী অফিসাররা রওনা দেয় মধ্যপ্রদেশের রায়পুরে। ট্রানজিট রিমান্ডে তাকে এদিনই রাজ্যে আনার তোড়জোড় শুরু হয়।[আকাঙ্খাকে পরিকল্পনা করে খুন নাকি উদয়নের মানসিক বিকার, মনোবিদের সাহায্যে উত্তর খোঁজার চেষ্টা পুলিশের]

উদয়ন জেরায় স্বীকার করেছে, সে শুধু আকাঙ্খাকেই নয়, নিজের বাবা-মাকেও খুন করে পুতে দিয়েছে দেহ। রায়পুরের বাড়ির মেঝেত বাবা-মার দেহ পুতো দেওয়ার পর দীর্ঘদিন বাবাকে ফেসবুকে জীবিত রেখেছিল সে। ফেসবুকে গড়ে তুলেছিল রূপকথার সাম্রাজ্য। নিজেকে একজন মার্কিন গবেষক বলে পরিচয় দিয়েছিল সে। ফেসবুকে তাঁর ফেক প্রোফাইলে নিজেকে মস্কো-প্যারিসের বাসিন্দা বলে পরিচয় দিত উদয়ন। মোট ছ'টি ভুয়ো ফেসবুক অ্যাকাউন্টের খোঁজ পেয়েছে পুলিশ।[ফেসবুকে 'রূপকথার সাম্রাজ্য' গড়েছিল সিরিয়াল কিলার উদয়ন দাস!]

English summary
Serial killer Udayan Das is brought to the state, presented to the court tomorrow.
Please Wait while comments are loading...