Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

মুর্শিদাবাদে সরকারি হাসপাতালে ভয়াবহ আগুন, মৃত ৩, অসুস্থ অনেকে

  • By: Oneindia Bengali Digital Desk
Subscribe to Oneindia News

মুর্শিদাবাদ, ২৭ অগাস্ট : মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভয়াবহ আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এর মধ্যে একটি শিশু ও একজন নার্স ও একজন রোগীর আত্মীয রযেছেন। সূত্রের খবর, এই সরকারি হাসপাতালের দোতলায় পুরুষ ওয়ার্ডে প্রথমে আগুন লাগে। [মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আগুন, উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর]

পরে সেই আগুন অতি দ্রুত অন্যান্য ওয়ার্ডে ছড়িয়ে পড়ে। তার জেরেই নামতে গিয়েই পদপিষ্ট হয়ে দুজনের মৃত্যুর ঘটনা বলে জানা গিয়েছে। মৃতেরা হলেন মামনি সরকার এবং পূর্ণিমা ঘোষ। তবে যে শিশুটি মারা গিয়েছে তার সঙ্গে আগুন লাগার কোনও সম্পর্ক নেই। সে নিউমোনিয়ার আক্রান্ত ছিল ফলে মারা গিয়েছে।

হাসপাতালের তিনতলায় সদ্যজাতদের জন্য এসএনএনইউ বিভাগ রয়েছে। আগুন ও ধোঁয়ার প্রভাব গিয়ে পৌঁছয় সেখানেও। হাসপাতালের কর্মী ও রোগীর আত্মীয়দের মদতে তড়িঘড়ি সদ্যজাতদের বাইরে বের করে আনা হয়। হাসপাতালের বাইরে মাটিয়ে কাপড় বিছিয়ে তাদের রাখা হয়। হাত পাখা দিয়ে তাদের হাওয়া দিয়ে সুস্থ রাখার চেষ্টাও করা হয়েছে।

মুর্শিদাবাদে সরকারি হাসপাতালে ভয়াবহ আগুন, মৃত ১, আটকে অনেকে

এই ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন চিকিৎসা করাতে আসা রোগী, নার্স, চিকিৎসক এবং হাসপাতাল কর্মীরা। শর্ট সার্কিটের জেরেই আগুন লেগেছে বলে প্রাথমিকভাবে অনুমান করা হচ্ছে।

এদিন আগুন লাগার পরই হাসপাতালে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। কিছু রোগী নিজেরাই, কাউকে আবার বাড়ির লোক ওয়ার্ড থেকে বের করতে গেলে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। অনেকে বিল্ডিংয়ের পাশের গাছ বেয়ে উঠে জানালার কাঁচ ভেঙে রোগীদের উদ্ধারে হাত লাগান। প্রশাসনের তরফে দমকলের ৩টি ইঞ্জিন দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

আগুন লাগার খবর পেযে দমকল এলেও তাদের কর্মীদের কাছে মাস্ক ছিল না। ফলে আগুনের ধোঁয়ার সঙ্গে পেরে না উঠে বেশ কিছুটা সময় উদ্ধারকাজ বন্ধ রাখতে হয়। যার ফলে দুর্ভোগ আরও বেড়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন রোগীর বাড়ির আত্মীয় থেকে সাধারণ মানুষ।

English summary
Fire broke in Murshidabad govt. hospital, West Bengal, 1 dead
Please Wait while comments are loading...