Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

ভয়াবহ আগুনে ভস্মীভূত, অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে গেল হাওড়া টাউন হল

Subscribe to Oneindia News

হাওড়া, ৯ ডিসেম্বর : বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডের জেরে শতাব্দী প্রাচীন হাওড়া টাউন হল বন্ধ করে দেওয়া হল অনির্দিষ্টকালের জন্য। শুক্রবার ভয়াবহ আগুন লাগে টাউন হলে। মুহূর্তেই দাউ দাউ আগুন ছড়িয়ে পড়ে পুরো হলে। ধোঁয়ায় ছেয়ে যায় এলাকা। এই অগ্নিকাণ্ডের পিছনে অন্তর্ঘাত রয়েছে বলে সরাসরি অভিযোগ পুরসভা কমিশনার নীলাঞ্জন চট্টোপাধ্যায়ের। মেয়র রথীন চক্রবর্তী বলেন, এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পূর্ণ তদন্ত হবে।

শতাব্দী প্রাচীন ওই টাউন হলের একাংশ ভেঙে পড়ার পর দীর্ঘদিন পরিত্যক্ত ছিল। তারপর সংস্কারের জন্য দীর্ঘ সময় লাগানো হয়। বছর তিনেক আগে যদিও বা স্বমহিমায় ফেরে টাউন হল, আবারও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা এই ঐতিহ্যশালী হলকে অন্ধকারে ঠেলে দিল। এই টাউন হলে নিয়মিত একটি কোর্ট চলত। তা আপাতত অন্যত্র স্থানান্তরিত করা হচ্ছে। এই হলে বহু গুরুত্বপূর্ণ নথিও ছিল। এই অগ্নিকাণ্ডের তার কিছু ক্ষতি হয়েছে। পাশেই ছিল মেয়র পারিষদের অফিস, সেই অফিসগুলিও আপাতত অন্যত্র সরানো হচ্ছে।

ভয়াবহ আগুনে ভস্মীভূত, অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে গেল হাওড়া টাউন হল

এদিন টাউন হলে আগুন বিধ্বংসী রূপ নেয়। নিমেষেই এই আগুন ছড়িয়ে পড়ে পুরো হলে। দমকলের চারটি ইঞ্জিন এই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দমকল ও পুলিশ তো পৃথক তদন্ত করবেই। বিভাগীয় তদন্তও করা হবে বলে জানিয়েছেন মেয়র রথীন চক্রবর্তী। তিনি বলেন, এই টাউন হল হাওড়ার ঐতিহ্য। এই টাউন হলকে আবারও পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে দেওয়া পুরসভার দায়িত্ব।

আগুন লাগার সময় টাউনহল সংলগ্ন পুরসভা অফিসে কয়েকজন মেয়র পারিষদও উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের নিরাপদে নামিয়ে আনা হয়। এই ঘটনায় কোনও হতাহতের খবর নেই। অন্তর্ঘাতের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পুর কমিশনার নীলাঞ্জন চট্টোপাধ্যায় জানান, আগের দিনও একটা ছোটোখাটো আগুন লেগেছিল। তারপর এদিন ভয়াবহ রূপ নেয় আগুন। কিন্তু কেন বারবার আগুন লাগছে, তা স্পষ্ট নয়। কাল আগুন লাগার পর সমস্ত সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা হয়েছিল, কিন্তু সমস্যা ধরা পড়েনি।

English summary
After a devastating fire in a century-old Howrah Town Hall is closed for an indefinite period.
Please Wait while comments are loading...