Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

খাস কলকাতায় অস্ত্র চোরাচালানকারীদের ডেরার হদিশ, গ্রেফতার ৩

Subscribe to Oneindia News

কলকাতা, ২৯ মার্চ : খাস কলকাতায় অস্ত্র চোরাচালানকারীদের ডেরার হদিশ পেলেন গোয়েন্দারা! বিহারের মুঙ্গের থেকে মালদহ, উত্তর ২৪ পরগনা হয়ে অস্ত্র আসত কলকাতায়। মঙ্গলবার রাতে সেই গোপন ডেরায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হল এক আন্তঃরাষ্ট্র অস্ত্র চোরাচালানকারীকে। তার দুই শাগরেদকেও এদিন পাকড়াও করা সম্ভব হয়েছে। তাদের কাছে থেকে উদ্ধার হয়েছে বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৭০ রাউন্ড গুলি।

মঙ্গলবার রাতে খিদিরপুরের একটি গেস্ট হাউস থেকে গ্রেফতার করা হয় তিন অস্ত্র চোরাচালানকারীকে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ পেয়েছে অস্ত্র চোরাচালানের গোপন করিডোরের খোঁজ। কোন পথে অস্ত্র আসত কলকাতায়, আবার কোন পথ দিয়ে তা ছড়িয়ে পড়ত অন্যত্র, তা স্পষ্ট হল গোয়ন্দাদের জেরায়।

কলকাতা, ২৯ মার্চ : খাস কলকাতায় অস্ত্র চোরাচালানকারীদের ডেরার হদিশ পেলেন গোয়েন্দারা! বিহারের মুঙ্গের থেকে মালদহ, উত্তর ২৪ পরগনা হয়ে অস্ত্র আসত কলকাতায়। মঙ্গলবার রাতে সেই গোপন ডেরায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হল এক আন্তঃরাষ্ট্র অস্ত্র চোরাচালানকারীকে। তার দুই শাগরেদকেও এদিন পাকড়াও করা সম্ভব হয়েছে। তাদের কাছে থেকে উদ্ধার হয়েছে বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৭০ রাউন্ড গুলি। মঙ্গলবার রাতে খিদিরপুরের একটি গেস্ট হাউস থেকে গ্রেফতার করা হয় তিন অস্ত্র চোরাচালানকারীকে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ পেয়েছে অস্ত্র চোরাচালানের গোপন করিডোরের খোঁজ। কোন পথে অস্ত্র আসত কলকাতায়, আবার কোন পথ দিয়ে তা ছড়িয়ে পড়ত অন্যত্র, তা স্পষ্ট হল গোয়ন্দাদের জেরায়। কলকাতা গোয়েন্দা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত আন্তঃরাষ্ট্র চোরাচালানকারীর নাম জামিরুল হাসান ওরফে ভিকি। সে দীর্ঘদিন ধরে খিদিরপুরের গেস্ট হাউসে গা ঢাকা দিয়েছিল। পুলিশও তাকে নজরে রাখছিল। মঙ্গলবার রাতে তাকে পাকড়াও করতে অভিযান চালানো হয়। সেইসঙ্গে তার দুই শাগরেদ মহম্মদ তারিফ ও মহম্মদ সাবিরকেও গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ জানতে পেরেছে, ওই দুই শাগরেদ মূলত ক্যারিয়ারের কাজ করত। এই অস্ত্র চোরাচালানের বড় র‍্যাকেট চালানোর মূল পান্ডা হল ভিকি। ভিকি এর আগে পুলিশের জালে ধরা পড়ে শাস্তিও পায়। সম্প্রতি সে জামিনে মুক্ত ছিল। কিন্তু জামিন পেয়েই সে ফিরে গিয়েছিল পুরনো ব্যবসায়। পুলিশ ধৃতদের জেরা করে জানতে পেরেছে, মালদহ, উত্তর ২৪ পরগনার সীমান্ত দিয়ে এ রাজ্যে প্রবেশ করত আন্তঃরাষ্ট্র চোরাচালানকারীরা। গোপান করিডোর হিসেবে ব্যবহার করা হল. কালিয়াচক, ক্যানিং, বনগাঁ ও কলকাতাকে।

কলকাতা গোয়েন্দা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত আন্তঃরাষ্ট্র চোরাচালানকারীর নাম জামিরুল হাসান ওরফে ভিকি। সে দীর্ঘদিন ধরে খিদিরপুরের গেস্ট হাউসে গা ঢাকা দিয়েছিল। পুলিশও তাকে নজরে রাখছিল। মঙ্গলবার রাতে তাকে পাকড়াও করতে অভিযান চালানো হয়। সেইসঙ্গে তার দুই শাগরেদ মহম্মদ তারিফ ও মহম্মদ সাবিরকেও গ্রেফতার করা হয়।
পুলিশ জানতে পেরেছে, ওই দুই শাগরেদ মূলত ক্যারিয়ারের কাজ করত। এই অস্ত্র চোরাচালানের বড় র‍্যাকেট চালানোর মূল পান্ডা হল ভিকি। ভিকি এর আগে পুলিশের জালে ধরা পড়ে শাস্তিও পায়। সম্প্রতি সে জামিনে মুক্ত ছিল। কিন্তু জামিন পেয়েই সে ফিরে গিয়েছিল পুরনো ব্যবসায়।

পুলিশ ধৃতদের জেরা করে জানতে পেরেছে, মালদহ, উত্তর ২৪ পরগনার সীমান্ত দিয়ে এ রাজ্যে প্রবেশ করত আন্তঃরাষ্ট্র চোরাচালানকারীরা। গোপান করিডোর হিসেবে ব্যবহার করা হল. কালিয়াচক, ক্যানিং, বনগাঁ ও কলকাতাকে।

English summary
CID tracing arms smuggler's underworld in Kolkata
Please Wait while comments are loading...