Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

বাতিল ৫০০ ও হাজারের নোট, চরম অমানবিকতার ছবি কলকাতার হাসপাতালে

  • By: Oneindia Bengali Digital Desk
Subscribe to Oneindia News

কলকাতা, ৯ নভেম্বর : মোদির ৯/১১-র ধাক্কায় চরম অমানবিকতার ছবি চিকিৎসাক্ষেত্রেও। কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালে কেমো থেরাপির মতো জরুরি পরিষেবাও থমকে গেল। ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোটের ধাক্কায় বাংলাদেশ থেকে আসা রোগীর কেমো থেরাপি হল না বুধবার। ১০০ টাকার নোট নিয়ে আসতে হবে, তবেই মিলবে চিকিৎসা, এই বলেই দায় সারল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

কাউন্টারে নোটিশ ঝুলছে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট আদান-প্রদান বন্ধ। একই নিদান ওষুধ দোকানগুলিতে। সল্টলেকের টাটা মেডিকেল সেন্টারে এই ছবি। গতকালই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেছেন ৫০০ ও হাজার টাকার নোট বন্ধের কথা। সেইমতো বুধবার সকাল থেকে ওই টাকা আদান-প্রদান বন্ধ করে দিয়েছে।

বাতিল ৫০০ ও হাজারের নোট, চরম অমানবিকতার ছবি কলকাতার হাসপাতালে

যে জরুরি পরিষেবাগুলো ছাড়ের তালিকায় রয়েছে, তার মধ্যে নেই বেসরকারি হাসপাতাল। এক্ষেত্রে জীবনদায়ক জরুরি পরিষেবা থমকে গিয়েছে শুধু মোদির টাকা নিষিদ্ধকরণের ধাক্কায়। সল্টলেকের টাটা মেডিকেল সেন্টার নিষিদ্ধ নোটে 'না' করে দিয়েছে। বিদেশ থেকে ক্যানসার আক্রান্ত রোগীরা এসেছেন চিকিৎসা করাতে। তাঁরা একটা সীমিত টাকা নিয়ে এদেশে এসেছেন। ভারতীয় মুদ্রায় তা রূপান্তরের পর হাতে সবই ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট, তাঁরা যাবেন কোথায়?

কোথা থেকে টাকা চেঞ্জ করবেন? কীভাবে চিকিৎসা করাবেন? আর কীভাবেই বা তাঁরা খাওয়া-দাওয়া করবেন? চরম বিপাকে পড়েছেন। আপাতত কোনও সমাধান সূত্র মেলেনি। বাংলাদেশ থেকে আসা ওই রোগীর পরিবার এখন চরম বিপাকে পড়েছেন। কেমো দিতে না পেরে জীবন সংশয় দেখা দিতে পারে রোগীর। কান্নাকাটি করেও কোনও উপায় মিলছে না।

কেষ্টপুর থেকে আসা এক রোগীও জীবনদায়ক ওষুধ কিনে নিয়ে যেতে পারেননি। এক রোগীকে সার্জারির জন্য ডেট দেওয়া হয়েছিল। আজই ছিল টাকা জমা দেওয়ার শেষদিন। কিন্তু তাঁকে সমস্ত ১০০ টাকার নোট আনতে বলা হয়েছে। বিপাকে পড়ে তাঁকেও ফিরে যেতে হয়েছে। ১০০ টাকার নোটও সীমিত। সমস্ত ১০০ টাকার নোট দেওয়া একপ্রকার অসম্ভব। ফলে চরম অমানবিকতার দৃশ্য বিরাজ করছে সল্টলেকের এই হাসপাতালে।

অন্যান্য বেসরকারি হাসপাতালেও একই ছবি দেখা যাচ্ছে। এমনকী সরকারি হাসপাতালের ফেয়ার প্রাইস শপেও একই চিত্র ধরা পড়েছে। সেখানে ৫০০ টাকা বা হাজার টাকা নেওয়া হচ্ছে না। রোগীর পরিবারের লোকজন চরম হয়রানির শিকার হচ্ছেন। ওষুধ না পেয়ে সসেমিরা অবস্থা রোগীরও। মোট কথা সব মিলিয়ে দেশজুড়ে নোটের ধাক্কায় বেসামাল সাধারণ মানুষ।

English summary
Note ban : public faces problems at hospital also
Please Wait while comments are loading...