Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

লক্ষ্মীর ঝাঁপিও কি কালো টাকা? মোদীর সমালোচনায় সরব মমতা

Subscribe to Oneindia News

কলকাতা, ১১ নভেম্বর : লক্ষ্মীর ঝাঁপিও কি কালো টাকা? ফের কেন্দ্রের মোদী সরকারের সমালোচনায় সরব হলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। সরাসরি নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ শানিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, গোটা দেশে আর্থিক অরাজকতা চলছে। সাধারণ গরিব মানুষকে ফাঁপরে ফেলে তিনি চললেন জাপান। মানুষ এসব মেনে নেবেন না। সময় এলেই মানুষ এর জবাব দেবেন। [৫০০ ও ১ হাজারের নোট বাতিল! এই সংক্রান্ত আপনার সমস্ত প্রশ্নের উত্তর পান এই প্রতিবেদনে]

নোট বাতিল ইস্যুতে মমতা বলেন, গ্রাম বাংলার গরিব মানুষ, মধ্যবিত্তদের গায়ে আঁচ পড়েছে। লক্ষ্মীর ঝাঁপি তো আর কালো টাকা নয়? কালো টাকা ধরুক তাতে আপত্তি নেই। কিন্তু, গ্রামের 'দিন আনি দিন খাই' মানুষের ভোগান্তির ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী কেন কিছু ভাববেন না! খুচরো টাকার জন্য মানুষ হাহাকার করছে, খেতে পারছে না। কেন দু'হাজার টাকার বেশি পাবেন না মানুষ? কেন বেসরকারি হাসপাতালগুলি পুরনো টাকা নেবে না? [২.৫ লক্ষ টাকার বেশি ব্যাঙ্কে জমা দিতে গেলে লাগতে পারে কর, আয়ের অসামঞ্জস্য হলে ২০০% জরিমানা]

লক্ষ্মীর ঝাঁপিও কি কালো টাকা? মোদির সমালোচনায় সরব মমতা

তিনি বলেন, কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তে সুবিধা হল তাঁদেরই, যাঁদের ক্রেডিট কার্ড আছে। যাঁদের সারাদিন ধরে না খেয়ে, লাইন দিয়ে টাকা তুলতে হচ্ছে, তাঁদের কথাটা ভাবুন। মুখ্যমন্ত্রী হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, এই হঠাৎ করে নোট পরিবর্তনের বিষয়টি সংসদে উঠবে। নতুন নোট তৈরি করতে কম খরচ হল না। সংসদে তার জবাব দিতে হবে সরকারকে।

মমতা তোপ দাগেন, রাজ্যে ব্যাঙ্ক নেই, থাকলেও ব্যাঙ্কে কর্মী নেই। আর পোস্ট অফিসগুলি তো সাইনবোর্ড হয়ে গিয়েছে। দেশের মানুষকে সঙ্কটে ফেলে তিনি চলে গেছেন জাপানে। ভোটের আগে তো প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কালো টাকা বিদেশ থেকে এনে ১৫ লক্ষ করে প্রত্যেকের অ্যাকাউন্টে দেওয়া হবে। সেই টাকা ফিরিয়ে আনতে পারেননি এখনও। [নোট বাতিল : প্রধানমন্ত্রীকে মাত্র ৯ মিনিটে রাজি করান এই অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞ]

চা বাগানগুলিতে কর্মীরা বেতন পাচ্ছেন না। ১০ হাজার টাকাও যদি তুলতে না পারে, তা হলে বেতন দেবে কীভাবে? এসবের জবাব দিতে হবে মোদীকে। মানুষ এর জবাব চাইবে। তৈরি হন মোদী।পাঁচশো-হাজার টাকার নোট বাতিলের সিদ্ধান্তে রাজনৈতিক তরজা এখন তুঙ্গে। মোদী টুইটে জানিয়েছেন, 'দুর্নীতিমুক্ত ভারত তৈরির চেষ্টা করছে তাঁর সরকার।' এই অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর 'হঠকারী' সিদ্ধান্তের সমালোচনায় সরব বিরোধীরা।

English summary
Note Ban : Mamata again criticise Modi
Please Wait while comments are loading...