Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

দিনদুপুরে খাস কলকাতার বুকে বৃদ্ধাকে বেঁধে রেখে লুঠপাট, পর পর ডাকাতিতে আতঙ্ক নিউ আলিপুরে

Subscribe to Oneindia News

কলকাতা, ২০ অক্টোবর : খাস কলকাতার বুকে দিনদুপুরে বৃদ্ধাকে বেঁধে লুঠপাট চালাল দুষ্কৃতীরা। ফের শিরোনামে সেই নিউ আলিপুর। দু'দিন আগেই একটি কুরিয়ার সংস্থা থেকে সাত লক্ষ টাকা চুরি হয়। এবার শিলা খেমকা নামে ৬৫ বছরের বৃদ্ধাকে বেঁধে ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে নগদ টাকা ও গয়না লুঠ করা হল। গ্রেফতার করা হয়েছে বাড়ির প্রাক্তন পরিচারক শঙ্করকে। এই ঘটনার পিছনে বিহারের বড় চক্রের যোগ রয়েছে বলে জানতে পেরেছেন তদন্তকারীরা। একের পর এক ডাকাতির ঘটনায় প্রশ্ন উঠেছে নিরাপত্তা নিয়ে।

প্রাক্তন পরিচারক শঙ্করের নাম ধরে ডাকতে ডাকতে ওই বাড়িতে ঢুকে পড়ে রমেশ প্রজাপতি নামে এক দুষ্কৃতী। তারপর ফোন করে সে ডেকে নেয় সঙ্গীদের। সেইসময় ওই বাড়িতে বৃদ্ধা শিলদেবী ছাড়া কেউ উপস্থিত ছিলেন না। শিলাদেবীর পুত্রবধূ ও নাতি বেরিয়ে যাওয়ার পরই এই দুষ্কৃতী হামলার ঘটনা ঘটে। বৃদ্ধাকে বেঁধে রেখে আলমারি ভেঙে নগদ টাকা, গয়নাগাটি লুঠ করে নিয়ে যায় তারা। শিলাদেবীর পুত্রবধূ বাড়ি ফিরে শাশুড়িকে উদ্ধার করেন। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। দিনেদুপুরে এই লুঠপাটের ঘটনা ও পর পর ডাকাতির ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

দিনদুপুরে খাস কলকাতার বুকে বৃদ্ধাকে বেঁধে রেখে লুঠপাট, পর পর ডাকাতিতে আতঙ্ক নিউ আলিপুরে

১৭ অক্টোবর এলাকারই একটি ক্যুরিয়ার সংস্থায় হানা দিয়ে সাত লক্ষ টাকা ডাকাতি করে নিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। এলাকাবাসীর অভিযোগ দক্ষিণ কলকাতাজুড়ে এই চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত নেমে বুঝতে পারে, ঘটনার পিছনে রয়েছে পরিচিত কেউ। তারপরই তদন্তকারীরা সূত্র পান, শঙ্করের নাম করে এই বাড়িতে ঢুকেছিল দুষ্কৃতীরা। শঙ্কর এই বাড়িতে আগে কাজ করত। পুলিশ তখনই স্থির করে শঙ্করকে হাতে পেলেই ডাকাতির ব্যাপারে অনেক তথ্য সামনে চলে আসবে।

শঙ্করকে জেরা করে রমেশ প্রজাপতি ও তার দলবলের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। পুলিশ জানতে পেরেছে, একদিন আগেই এই দুষ্কৃতী দল রেইকি করে গিয়েছিল। আর লিঙ্কম্যান হিসেবে কাজ করেছিল শঙ্কর। তাকে জেরা করেই বিহারের চক্রের ব্যাপারেও জানতে পেরেছে পুলিশ। তাদের খোঁজেও তল্লাশি শুরু হয়েছে।

English summary
New Alipur robbery case: police arrested servent
Please Wait while comments are loading...