Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

শিক্ষাঙ্গনে বহিরাগত তাণ্ডব, অপসারিত মন্ত্রীপুত্র, বহিষ্কৃত তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতা

Subscribe to Oneindia News

কলকাতা ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, ৮ মার্চ : ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দুই কলেজে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের তাণ্ডব। এবার কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার পথেই হাঁটলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। চারুচন্দ্র কলেজের ঘটনায় মন্ত্রীপুত্র সায়নদেব চট্টোপাধ্যায়কে পদ থেকে অপসারিত করা হল। আর ক্যানিংয়ের বঙ্কিম সর্দার কলেজে তাণ্ডবের ঘটনায় বহিষ্কার করা হল তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতা অরিত্র বসুকে।

অভিযোগ, চারুচন্দ্র কলেজে তাণ্ডবের সময় বাইরে দাঁড়িয়ে ইন্ধন দিয়েছিলেন বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের পুত্র যুব তৃণমূল কংগ্রেস নেতা সায়নদেব চট্টোপাধ্যায়। সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সায়নদেব চট্টোপাধ্যায়কে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার সুপারিশ করেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি বলেন, যুব তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিষয়টি জানানো হয়েছে। যতক্ষণ না পর্যন্ত সায়নদেবের কাছ থেকে সদুত্তর পাওয়া যায়, ততক্ষণ তাঁকে দলের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হোক।
সেইমতোই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

শিক্ষাঙ্গনে বহিরাগত তাণ্ডব, অপসারিত মন্ত্রীপুত্র, বহিষ্কৃত তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতা

দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় সায়নদেব চট্টোপাধ্যায়ের কাছ থেকে সদুত্র না পাওয়া পর্যন্ত দল থেকে সামিয়ক অপসারণের বার্তা দেন। সায়নদেব বলেন, চারুচন্দ্র কলেজে তাণ্ডব চলাকালীন ঘটনাচক্রে পাশ দিয়ে যাচ্ছিলাম। কৌতুলবশত জানাতে চেয়েছিলান কী হয়েছে, তা নিয়ে যে এইভাবে রাজনীতি হবে, ভাবতে পারিনি। দলের সিদ্ধান্ত তিনি মেনে নিচ্ছেন। তাঁর উত্তরও তিনি পাঠিয়ে দেবেন।

অন্যদিকে চারুচন্দ্র কলেজে তাণ্ডবের পর ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিংয়ের বঙ্কিম সর্দার কলেজ। কলেজ ছাত্র সংসদের প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক অরিত্র বসুর নেতৃত্বে তাণ্ডব চলে। ঘেরাও করে রাখায় হয় অধ্যক্ষকে। তারপর ক্লাসরুম থেকে শুরু করে সংসদ কক্ষে ভাঙচুর চালানো হয়। আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ চলে। অধ্যক্ষ তিলক চট্টোপাধ্যায় বলেন, প্রায় চার ঘণ্টা আটকে ছিলাম। দরজা পর্যন্ত ভাঙা হয়েছে। বাধ্য হয়েই প্রশাসনের দ্বারস্থ হতে হয়।

শিক্ষামন্ত্রী তথা দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেন। এই কড়া ব্যবস্থা নিয়ে তিনি বলেন, শিক্ষাঙ্গনে ছাত্ররাই থাকবে, বহিরাগতদের কোনও স্থান নেই।

English summary
Due to external attack in college Minister's son was removed, TMCP leader was expelled.
Please Wait while comments are loading...