Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে সিবিআই জেরার মুখে কন্যা সোহিনী

  • Written By: Kousik
Subscribe to Oneindia News

কলকাতা, ২ জানুয়ারি : বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে সিবিআই জেরার মুখে তাপস পাল কন্যা সোহিনী। আজ সোমবার ভুবনেশ্বরে সিবিআই দফতরে বাবা তাপস পালের সঙ্গে দেখা করতে যান সোহিনী পাল। সেই সময়ে তাঁকে দীর্ঘক্ষণ দফায় দফায় জেরা করেন সিবিআই আধিকারিকরা। জিজ্ঞাসাবাদে রোজভ্যালি থেকে তিনি কোনও ভাবে উপকৃত হয়েছিলেন কিনা তা জানার চেষ্টা করেন তদন্তকারী আধিকারিকরা।

তদন্তে সিবিআই আধিকারিকরা জানতে পেরেছেন যে বিভিন্ন সময়ে রোজভ্যালির একাধিক অনুষ্ঠানে মেয়ে সোহিনী এবং স্ত্রীকে নিয়ে গিয়েছেন তাপস পাল। যদিও স্ত্রী নন্দিনী পাল রোজভ্যালির বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে জানতে পেরেছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। আর সেজন্যে গত ৩০ ডিসেম্বর তাপস পালের সঙ্গেই দফায় দফায় নন্দিনী পালকে জেরা করেন তদন্তকারীরা। কোন আর্থিক সুযোগসুবিধা তিনি রোজভ্যালির কাছ থেকে পেয়েছেন কিনা তা জানার চেষ্টা করেন তারা।

বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে সিবিআই জেরার মুখে কন্যা সোহিনী

শুধু তিনিই নয়, রোজভ্যালি-তদন্তে সিবিআই জানতে পেরেছে যে রোজভ্যালির একটি সিনেমার সঙ্গে জড়িত ছিলেন সোহিনী। সেই সিনেমার পিছনে কোনও আর্থিক লেনদেন কিংবা আর্থিক সুবিধা পাওয়ার বিষয় রয়েছে কিনা তা জানতেই এদিন দীর্ঘক্ষণ সোহিনীকে জেরা করে সিবিআইয়ের তদন্তকারী আধিকারিকরা। সূত্রে জানা গিয়েছে, বেশ কিছু নথি সোহিনী পালকে সিবিআইকে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আধিকারিকরা।

পরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সোহিনী পাল স্বীকার করে নেন যে তিনি রোজভ্যালি কর্তা গৌতম কুণ্ডুকে চেনেন। তবে কোনওদিন তাঁর সঙ্গে কোনও বৈঠক হয়নি বলেই দাবি করেছেন তাপস কন্যা। এমনকি, কোনও দিন রোজভ্যালি থেকে কোন আর্থিক সুবিধা নেননি বলেও দাবি করেছেন অভিনেত্রী তথা তাপস কন্যা।

অন্যদিকে, আগামীকাল মঙ্গলবার ফের ভুবনেশ্বর আদালতে তাপস পালকে তোলা হলে নতুন করে ফের নিজেদের হেফাজতে নিতে পারে সিবিআই। কারণ বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তর জানতে রোজভ্যালি কর্তা গৌতম কুণ্ডু এবং তাপস পালকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করতে পারে সিবিআই আধিকারিকরা বলেই জানা গিয়েছে।

English summary
cbi interogate tapas paul daughter sohini paul .
Please Wait while comments are loading...