Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

জিনপিং, পুতিন, নওয়াজ শরিফের আগে কেন মোদীর সঙ্গে কথা বললেন ট্রাম্প?

Subscribe to Oneindia News

ওয়াশিংটন, ২৫ জানুয়ারি : মঙ্গলবার রাতেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে ফোনে কথা বললেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নয়া রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প।

পঞ্চম বিদেশি নেতা হিসাবে মোদীকে ট্রাম্পের ফোন অবশ্যই ভারতের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। উল্লেখ্য, ২০ জানুয়ারি শপথ নেওয়ার পরেই ২১ জানুয়ারি ট্রাম্প কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এবং মেক্সিকোর প্রিমিয়ার পেনা নিয়েতোর সঙ্গে কথা বলেন ট্রাম্প। গত রবিবার ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে কথা বলেন, এছাড়াও গতকাল অর্থাৎ সোমবার মিশরের রাষ্ট্রপতি আব্দেল ফাত্তাহ আল-সিসির সঙ্গেও কথা বলেন ট্রাম্প।

কিন্তু মস্কো, বেজিং, টোকিও কিংবা অন্য কোনও ইউরোপীয় রাজধানীর আগে ট্রাম্প যে নয়াদিল্লিকে বেছে নিয়েছেন। এই পদক্ষেপ বিতর্কিত না হলেও ভারত মার্কিন সম্পর্ক ও সম্ভাব্য নতুন সমীরপণের ক্ষেত্রে অর্থবহ তো বটেই।

ভারত মার্কিন সম্পর্ক আরও মজবুত করতে তোড়জোড়

ভারত মার্কিন সম্পর্ক আরও মজবুত করতে তোড়জোড়

অফিসের দায়িত্ব নেওয়ার পর ট্রাম্প প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামার মতোই ভারতের সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক আরও মজবুত করতে আগ্রহী। চিনের মোকাবিলায় ভারতকে পাশে পেতে হলে আগে থেকে যে সম্পর্ক মজবুত করতে হবে তা জানেন ব্যবসায়ী ট্রাম্প।

প্রথম ফোন এসেছিল মোদীর

প্রথম ফোন এসেছিল মোদীর

নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর ট্রাম্পকে ফোনে শুভেচ্ছা দেওয়া আন্তির্জাতিক নেতাদের তালিকায় প্রথমের দিকেই রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

ট্রাম্প-মোদীর মিল

ট্রাম্প-মোদীর মিল

বেশ কিছু পরিস্থিতিতে মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে। নির্বাচনী প্রচারেও মোদীর স্লোগান ধার করে অবকি বার ট্রাম্প সরকার স্লোগানও বেশ হিট করেছিল। এরপর ২০ জানুয়া রাষ্ট্রপতি পদে শপথ নেওয়ার পর ট্রাম্প যে বক্তৃতা দেন তাকে নরেন্দ্র মোদীর বক্তৃতার সঙ্গে তুলনা করেছিলেন অনেকেই। নিজের বক্তৃতাতেও বহুবার ভারতের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন ট্রাম্প।

পুতিনকে এড়িয়ে চলছেন ট্রাম্প

পুতিনকে এড়িয়ে চলছেন ট্রাম্প

বর্তমানে পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প যতই রুশ রাষ্ট্রপতি পুতিনকে স্মার্ট বলে প্রশংসা করুন না কেন কিন্তু আদতে দুই দেশের মধ্যে নানা কারণে মূলত কূটনৈতিক কারণে উত্তেজনা বাড়ছে। তাছাড়া পুতিনের বার বার ট্রাম্পকে কটাক্ষ চলেই আসছে। দায়িত্ব হাতে নিয়েই বিতর্কে জড়াতে চান না ট্রাম্প। সম্ভবত এখনই রুশ রাষ্ট্রপতিকে ফোন করবেন না ট্রাম্প।

পাকিস্তান নিয়ে কড়া ট্রাম্প

পাকিস্তান নিয়ে কড়া ট্রাম্প

উল্লেখযোগ্য বিষয় হল ট্রাম্পের আগে ওবামাও প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে ভারতে আসার আমন্ত্রণ গ্রহণ করে ভারতে এলেও পাকিস্তানকে যথাসম্ভব এড়িয়ে চলতেন। ট্রাম্পও দায়িত্ব গ্রহণ করার পর পাকিস্তান নিয়ে কোনও ইতিবাচক ইঙ্গিত গেননি। বরং উল্টে বলেছেন, চরমপন্থী ইসলামিক আতঙ্কবাদীদের সমস্ত দেশ থেকে উৎখাত করে ছাড়বেন। এদিকে পাকিস্তানের তরফে ডিসেম্বর মাসে দাবি করা হয়েছিল, ট্রাম্প নওয়াজ শরিফকে ফোন করেছিলেন। যদিও ট্রাম্প অফিস সূত্রে সে দাবি খারিজ করে দেওয়া হয়।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতে সঙ্গে হাত

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতে সঙ্গে হাত

ট্রাম্প সর্বদা আতঙ্কবাদের বিরোধিতা করে এসেছেন। এবং সেই কারণে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কড়া মনোভাব দেখিয়ে এসেছেন। সম্প্রতি এক শীর্ষ মার্কিন আধিকারিক এই পর্যন্তও বলেছিলেন যে, ভারত ট্রাম্পের সঙ্গে মিলে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ পর্যন্ত নিতে পারেন ট্রাম্প।

জিনপিংয়ের হুমকি

জিনপিংয়ের হুমকি

চিনের রাষ্ট্রপতি জিনপিং নভেম্বর মাসে ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলেছিলেন। জিনপিং সাফ জানিয়েছিলেন সম্পর্ক উন্নত করা ছাড়া আমেরিকার কাছে আর অন্য কোনও উপায় নেই। দুই প্রতিদ্বন্দ্বী পারাশক্তির মধ্যে অহমের লড়াই চলছে। একদিকে যেমন রাশিয়া, চিন পাকিস্তান মিলে শক্তিশালী ত্রিভুজ শক্তিতে পরিণত হচ্ছে, সেখানে আমেরিকা পাল্টা ইউরোপীয় ইউনিয়ন, জাপান ও এশীয় জোটদের নিয়ে এগোতে চাইছে। সেক্ষেত্রে ভারত অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দেশ আমেরিকার কাছে। তাই নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখা আমেরিকার কৌশল তো বটেই।

English summary
Why Donald Trump chose Modi over Vladimir Putin, Xi Jinping
Please Wait while comments are loading...