বাংলাদেশে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার

  • Posted By: BBC Bengali
Subscribe to Oneindia News

বাংলাদেশে মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া দেশব্যাপী সড়ক পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিয়েছে শ্রমিকরা।

দুপুর আড়াইটার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান ধর্মঘট প্রত্যাহারের কথা ঘোষণা করেন। নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান একই সাথে সড়ক পরিবহন শ্রমিকদের একজন শীর্ষ নেতা।

শাজাহান খান বলেন, যে দুজন ড্রাইভারের আদালতে সাজা হয়েছে তাদের জন্য উচ্চ আদালতে আইনগত লড়াই করা হবে। এক্ষেত্রে সরকার তাদের আইনগত সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে বলে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, " আমরা সারাদেশের পরিবহন মালিকদের বাস-ট্রাক চালানোর আহবান করছি। আমরা করছি আমাদের আহবানে তারা সাড়া দেবে এবং দেশের সর্বত্র যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হবে।"

তবে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী এটিকে ধর্মঘট হিসেবে বর্ণনা করতে রাজী নন। তিনি এটিকে শ্রমিকদের 'স্বেচ্ছা কর্মবিরতি' হিসেবে বর্ণনা করছেন

এদিকে পরিবহন খাতে অচলাবস্থা নিরসনের লক্ষ্যে বুধবার সকালে সচিবালয়ে বৈঠকে বসেছিলেন সরকারের কয়েকজন সিনিয়র মন্ত্রী।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান, স্থানীয় সরকার ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা এবং সড়ক পরিবহনের মালিক ও শ্রমিকদের কয়েকজন প্রতিনিধি এ বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন।

উল্লেখ্য নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান সড়ক পরিবহন শ্রমিক সংগঠনের শীর্ষ নেতাও বটে। এছাড়া স্থানীয় সরকার এবং সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির একজন শীর্ষ নেতা।

দু'টো সড়ক দুর্ঘটনার মামলায় সম্প্রতি একজন চালককে যাবতজীবন কারাদণ্ড এবং অপরজনকে মৃত্যুদণ্ড দেবার প্রতিবাদে দেশজুড়ে পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়েছে। মানিকগঞ্জে একটি দুর্ঘটনায় ২০১১ সালে চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদ ও সাংবাদিক মিশুক মুনির নিহত হয়। অপর আরেকটি ঘটনায় সাভারে এক নারী ট্রাক চাপায় নিহত হয়।

এদিকে পরিবহন ধর্মঘটের কারণে যাত্রী এবং পরিবহনে ব্যাপক দুর্ভোগ তৈরি হয়েছিল।

BBC
English summary
Workers withdrew Bangladesh Road Transport nationwide strike.At a press conference on the afternoon, Shahajhan Khan, Shipping Minister announced the withdrawal of the strike.
Please Wait while comments are loading...