Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

মহাকাশে নতুন গ্রহ 'প্রক্সিমা বি'-র সন্ধান পেলেন বিজ্ঞানীরা

  • By: Oneindia Bengali Digital Desk
Subscribe to Oneindia News

মহাকাশ গবেষকদের কাছে আজকের দিনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কেননা বহু সন্ধান ও গবেষণা চালিয়ে তাঁরা পৃথিবীর নিকটবর্তী গ্রহের সন্ধান পেয়েছেন। বিজ্ঞানীরা নতুন আবিষ্কৃত গ্রহটির নাম দিয়েছেন 'প্রক্সিমা বি' (Proxima B)। লন্ডনের ক্যুইন ম্যারি বিশ্ববিদ্যলয়ের অধীনস্ত আন্তর্জাতিক মহাকাশ গবেষনাকারী দলের প্রচেষ্টাতেই এই অসাধ্য সাধন সম্ভব হয়েছে। [মঙ্গল গ্রহকে বাসযোগ্য করে তুলতে ফাটানো হবে পরমাণু বোমা!]

জানা গিয়েছে নতুন আবিষ্কৃত গ্রহটি সৌরজগৎ থেকে প্রায় ৪ কোটি ২ লক্ষ আলোকবর্ষ দূরে অবস্থান করছে। বিজ্ঞানীদের মতে, প্রক্সিমা বি গ্রহের আবহাওয়ার সম্পর্কে এখনও পর্যন্ত যে তথ্য সামনে এসেছে তাতে এই গ্রহে জল থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। বিজ্ঞানীরা আরও একটি তথ্য সামনে এনেছেন তা হল প্রক্সিমা বি গ্রহটি আকারে পৃথিবীর তুলনায় প্রায় ৩০ গুন বেশি বড়।

মহাকাশে নতুন গ্রহ 'প্রক্সিমা বি'-র সন্ধান পেলেন বিজ্ঞানীরা

আনুমানিক ১৬ বছর ধরে এই গ্রহের অবস্থানের খোঁজ চালিয়ে এতদিনে বিজ্ঞানীরা তার রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হলেন। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন কম্পমান সচরাচর এই গ্রহটিকে ১১ দিন এবং কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে পৃথিবীর কাছাকাছি অবস্থান করতে দেখা যায়। উল্লেখ্য গ্রহটির প্রদক্ষিণের সময়ে রঙের পরিবর্তনও লক্ষ করা গিয়েছে। [সূর্যের চেয়ে আয়তনে ৬৬ কোটি গুণ বড় 'ব্ল্যাক হোল'!]

তবে প্রক্সিমার চরিত্র সূর্যের তুলনায় অনেকটাই আলাদা। প্রক্সিমা আকারেও সূর্যের তুলনায় অনেকটাই ছোট এবং শীতলতম একটি গ্রহ। তবে জলের অবস্থান সেখানে ফুটন্ত বা জমাট বাঁধা অবস্থায় থাকবে না সে বিষয়ে একপ্রকার নিশ্চিত গবেষকরা।

'প্রক্সিমা বি' নিয়ে গবেষকরা বহু তথ্য প্রকাশ করেছেন। তাঁদের মতে, পৃথিবীর আবহাওয়ার মতোই প্রক্সিমাতেও মাধ্যাকর্ষণ শক্তির প্রভাব রয়েছে তাই সেখানে প্রানের অস্তিত্ব থাকতে পারে। তবে গবেষণার কাজ এখনই পুরো শেষ হয়ে যায়নি। তাই আগামী দিনেও গবেষকরা সৌরজগতের এই নতুন সদস্য গ্রহের বিষয়ে আরও অনুসন্ধান চালাতে চান। [মরেই গিয়েছে আইসন,দাবি বিজ্ঞানীদের]

English summary
New planet Proxima B found by scientists
Please Wait while comments are loading...