Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

নতুন মার্কিন অভিবাসন নিষেধাজ্ঞায় ছাড় ইরাককে

Subscribe to Oneindia News

ওয়াশিংটন, ৭ মার্চ: অভিবাসন নীতি নিয়ে মার্কিন প্রশাসনের এক নতুন নির্দেশিকায় স্বাক্ষর করলেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প। নতুন এই নির্দেশিকায় ৭ টি মুসলিম প্রধান দেশের জায়গায় ৬ টি মুসলিম প্রধান দেশের নাগরিকদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নতুন অভিবাসন নিষেধাজ্ঞা নীতি ছাড় দেওয়া হয়েছে ইরাককে।

ট্রাম্প প্রশাসনের নতুন এই নির্দেশিকার নিয়ম অনুযায়ী সুদান, সিরিয়া, ইয়েমেন, সোমালিয়া, ইরান,লিবিয়ার নাগরিকদের মার্কিন মুলুকে প্রবেশাধিকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। নতুন এই নিয়মের প্রভাব মার্কিন মুলুকে বর্তমানে বৈধভাবে বসবাসকারী ওই ৬টি দেশের নাগরিকদের ওপর পড়বে না বলে জানানো হয়েছে। অবশ্যই এর জন্য ওই দেশগুলির নাগরিকদের বৈধ ভিসা ও গ্রিন কার্ড থাকতে হবে।[মার্কিন অভিবাসন নীতি : ট্রাম্পের 'নিষেধাজ্ঞার' ফরমানের নয়া সংস্করণ আসতে চলেছে]

নতুন মার্কিন অভিবাসন নিষেধাজ্ঞায় ছাড় ইরাককে

এর আগে ৭টি মুসলিম প্রধান দেশকে নিষেধাজ্ঞার তালিকার আওতায় রাখা হয়েছিল। সেই তালিকা থেকে ছাড় দেওয়া হয়েছে ইরাকের নাগরিকদের। কিছুদিন আগেই , মার্কিন অভিবাসন নীতি নিয়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায় বিশ্বজুড়ে। দেশের মাটিতেও প্রবল বিতর্কের মুখে পড়তে হয় ট্রাম্প প্রশাসনকে। আইনগত ভাবেও মার্কিন বিচার ব্যবস্থার সামনে মুখ থুবড়ে পড়ে পুরনো অভিবাসন সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞার নির্দেশ। তরপরই এই নতুন অভিবাসন নীতি জারি করল মার্কিন প্রশাসন।

যদিও নতুন এই নিষেধাজ্ঞার নির্দেশকে " মুসলিম ব্যান ২.০" বলে কটাক্ষ করেছেন মার্কিন কংগ্রেসের সদস্য অ্যান্দ্রে কারসন। তবে মার্কিন স্বরাষ্ট্র দফতরের তরফে বলা হয়েছে , এই নিষেধাজ্ঞার নীতি জারি করতে তাঁরা প্রতিজ্ঞবদ্ধ ছইলেন। তাই আর কোনও উপায় ছিলনা, একে লাগু করা ছাড়া।

English summary
The Donald Trump administration issued a new executive order on Monday, temporarily banning travel from six Muslim-majority countries to the U.S., after an earlier order ran foul of the country’s judiciary. The new executive order bans travel from six countries — Sudan, Syria, Iran, Libya, Somalia, and Yemen, leaving out Iraq that was also in the list of barred countries in the January order.
Please Wait while comments are loading...