Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

জঙ্গি কোষাগার দেখভালের দায়িত্বে প্রাক্তন পাক সেনা ব্রিগেডিয়ার

Subscribe to Oneindia News

নয়াদিল্লি, ২ মে: সন্ত্রাসবাদীদের কোষাগার দেখাশোনার দায়িত্বে রয়েছেন পাকিস্তানের এক প্রাক্তন সেনা ব্রিগেডিয়ার। তাঁকে কাশ্মীর সীমান্তে চলা দুদেশের বাণিজ্যের থেকে জঙ্গি কোষাগার ভরার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে , বলে খবর। ভারত-পাক সীমান্তে প্রায় ৬৬৭ জন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চলছে এই তোলা আদায়ের কাজ। যে টাকা দিয়ে ভর্তি হচ্ছে পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গিশিবিরের কোষাগার।['মায়ের রান্নাঘরে কীভাবে বানাবে বোমা'- শেখাচ্ছে IS টেক্সট বই]

পাকিস্তানের সেনার প্রাক্তন এই অফিসার ব্রিগেডিয়ার আহমেদ ইকবাল সম্পর্কে আরও বেশ কিছু তথ্য হাতে এসেছে এনআইএ- এর কাছে। পুঞ্চের চাক্কান-দা-বাগ ও সালমাবাদের বাণিজ্য বিষয়ক কেন্দ্র থেকে এবিষয়ে বহু নথি হাতে এসেছে এনআই -এর।['A ফর AK47, B ফর Bomb' আইএস জঙ্গিদের বইয়ের সহজপাঠ কেমন, জেনে নিন]

জঙ্গি কোষাগার দেখভালের দায়িত্বে প্রাক্তন পাক সেনা ব্রিগেডিয়ার

মনে করা হচ্ছে, এই সমস্ত তথ্যাদি থেকে, সীমান্তে কীভাবে পাক সন্ত্রাসবাদীরা জাল বিছিয়েছে তা জানা যাবে। বিশেষত হাতে পাওয়া যাবে জঙ্গিদের বহু অজানা কোষাগারের হদিশও। সবচেয়ে চাঞ্চল্যকর বিষয় হল , পাকিস্তান থেকে এক বিশেষ জাতের আমন্ড বাদাম নিয়ে আসা হয়। যা বেশি দামে ভারতের বাজারে বিক্রি করা হয়।[জঙ্গিরা কত মাস মাইনে পায়? মৃত জঙ্গির পরিবার কত ক্ষতিপূরণ পায়? চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট গোয়েন্দাদের]

জঙ্গিদের নিজেদের পছন্দের আমন্ড বিক্রেতা ছাড়া ভারতের বাজারে কোনও ব্যবসায়ী আমন্ড বিক্রয় করতে পারেননা। এর জন্য তারা জঙ্গিদের কাছ থেকে টাকাও পান বলে খবর। আর এই সমস্ত ব্যবসায়ীকে কাজে লাগিয়েই জঙ্গি কার্যকলাপ চালাচ্ছে পাকিস্তানি জঙ্গিরা। বিশেষত কাশ্মীর উপত্যকাকে অশান্তির মধ্যে রাখার নেপথ্যে রয়েছে জঙ্গিদের বিশাল টাকার অঙ্কের কোষাগার।

English summary
A retired brigadier of the Pakistan army has been appointed to oversee the funding of terrorism through cross-border trade. NIA sources say that the retired army officer has identified 667 traders through whom the funds are being raised. The officer has been identified as Brigadier Ahmed Iqbal, sources say.
Please Wait while comments are loading...