Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

ট্রেনে চেপে মাত্র ৫ ঘন্টায় কলকাতা থেকে দিল্লি, স্বপ্ন হতে চলেছে সত্যি

  • Posted By: Soumik
Subscribe to Oneindia News

কলকাতা থেকে সকালে ট্রেনে চেপে দিল্লি গিয়ে রাতের ট্রেনে ফিরে আসা। শুনে কল্পনা মনে হচ্ছে তো? হওয়াটাই স্বাভাবিক। কিন্ত একদিনে ট্রেনে করে কলকাতা থেকে দিল্লি হয়ে ফের কলকাতা ফেরা এবার সম্ভব হতে চলেছে। সৌজন্যে কলকাতা- দিল্লি বুলেট ট্রেন। তবে এখনই নয়, একদিনে প্রায় তিন হাজার কিমি যাত্রা করতে অপেক্ষা করতে হবে অন্তত ২০৩৯ সাল পর্যন্ত

ট্রেনে চেপে মাত্র ৫ ঘন্টায় কলকাতা থেকে দিল্লি, স্বপ্ন হতে চলেছে সত্যি

দিল্লি- কলকাতা করিডর দিয়ে বুলেট ট্রেন চালানো নিয়ে চলতি মাসের গোড়াতেই চূড়ান্ত রিপোর্ট জমা দিয়েছে রেল বিকাশ নিগম লিমিটেড। রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২৫০ থেকে ২৭০ কিমি গতিতে যাত্রা করলে ৫.২৪ ঘন্টাতেই কলকাতা থেকে দিল্লি ১৪৭৪.৪৮ কিমি পথ অতিক্রম করা সম্ভব। বর্তমানে কলকাতা রাজধানী এক্সপ্রেসের এতটা পথ যেতে ১৭ ঘন্টা লাগে।

রেলসূত্রে জানা গিয়েছে, ধাপে ধাপে এই প্রকল্পের কাজ হবে। প্রথম পর্যায়ের কাজ শুরু হবে ২০২১ সালে। প্রথম ধাপে দিল্লি- বারাণসি করিডরের কাজ হবে। ২০৩১ সালে প্রথম পর্যায়ের কাজ সম্পন্ন হবে। রেল বিকাশ নিগম লিমিটেডের কর্তা রাজেশ প্রসাদ জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে কলকাতা স্টেশনকে টার্মিনাল স্টেশন করার কথা ভাবা হলেও পরবর্তী সময়ে শালিমারকেই টার্মিনাল স্টেশন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ট্রেনে চেপে মাত্র ৫ ঘন্টায় কলকাতা থেকে দিল্লি, স্বপ্ন হতে চলেছে সত্যি

রাজেশ প্রসাদ জানিয়েছেন, জমি অধিগ্রহণ ও বিপুল খরচই এই প্রকল্পের বড় বাধা। এই দুটি পেরতে পারলে কাজ অনেকটাই সহজ হয়ে যাবে। শালিমার- দিল্লি বুলেট ট্রেন প্রকল্পে প্রয়োজন ৩৬৮টি ওভারব্রিজ, ৬৫টি আন্ডার ব্রিজ ও ৫টি টানেল। এছাড়াও বুলেট ট্রেনের জন্য প্রয়োজন এলিভেটেড ট্র্যাক বা মাটি থেকে বেশ কিছুটা ওপর দিয়ে রেল লাইন। বেশ কয়েকটি বড় শহরের ওপর দিয়ে ছুটবে এই বুলেট ট্রেন। এখন অপেক্ষা ২০৩৯ সালের। সেক্ষেত্রে পরবর্তী প্রজন্ম এই বুলেট ট্রেনের সুবিধে বেশি ভাল করে নিতে পারবে তা বলাই যায়।

English summary
Kolkata to Delhi in mere 5 hours, bullet train to run on tracks in 2039. Rail Vikash Nigam limited submitted its report.
Please Wait while comments are loading...