Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

শালীনতার সব সীমা ছাড়ালেন শিক্ষক, ছাত্রীর সঙ্গে অশ্লীল ছবি তোলা ঘিরে বিতর্ক

  • Posted By:
Subscribe to Oneindia News

দক্ষিণ অসমের হাইলাকান্দি জেলার একটি বেসরকারি স্কুলে এক শিক্ষক যেভাবে ছাত্রীদের সঙ্গে অশ্লীল ভঙ্গিতে ছবি তুলেছেন তাতে শালীনতার সব সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছে। ঘটনা সামনে আসার পরে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে পসকো সহ বিভিন্ন ধারায় মামলা করা হয়েছে। ছাত্রীদের সঙ্গে যেভাবে ছবি তুলেছেন এই শিক্ষক তা দেখে বিস্মিত সকলেই। স্যোশাল মিডিয়ায় সেই ছবি আসতেই তা ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

[আরও পড়ুন:ফেসবুক মেসেঞ্জারের মাধ্যমে কীভাবে খুব সহজেই টাকা লেনদেন করবেন জানেন কি]

ভাইরাল ছবি

ভাইরাল ছবি

শিক্ষক ক্লাসরুমে বসেই ছাত্রীদের সঙ্গে অশ্লীলভাবে ছবি তুলে তা স্যোশাল মিডিয়ায় দিয়েছেন। অসমের শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানিয়েছেন, অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ছাত্রীদের সঙ্গে গর্হিত আচরণ সহ নানা অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশের বক্তব্য

পুলিশের বক্তব্য

হায়লাকাণ্ডির এসপি প্রণব জ্যোতি গোস্বামী জানিয়েছেন, অভিযুক্ত শিক্ষক ফউজুদ্দিন লস্কর (৩৭) লালা পুলিশ স্টেশনের অধীনস্থ এলাকার বাসিন্দা। তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৯২, তথ্যপ্রযুক্তি ধারার ৬৭ ও পসকো ধারার মামলা করা হয়েছে।

স্কুলের মধ্যেই অশ্লীলতা

স্কুলের মধ্যেই অশ্লীলতা

স্যোশাল মিডিয়ায় ছবিগুলি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। গুয়াহাটি থেকে হাইলাকাণ্ডির দূরত্ব ৩৭৫ কিলোমিটার। আর হায়লাকাণ্ডি থেকে স্কুলটি ৭০ কিলোমিটার দূরে। সেখানেই অভিযুক্ত শিক্ষক অপকর্মটি ঘটিয়েছেন। আপত্তিকর অবস্থায় মেয়ের বয়সী ছাত্রীদের সঙ্গে ছবি তুলেছে। শুধু তাই নয়, মেয়েটিকে বিয়ের প্রতিশ্রুতিও দেন তিনি।

স্যোশাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট

স্যোশাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট

মেয়ের বাবা শিক্ষকের প্রস্তাবে রাজি না হয়ে মেয়ের বিয়ে দিলে অন্য লোক দিয়ে পাত্রের বাবাকে মেয়ের ছবি দেখায় অভিযুক্ত শিক্ষক। তাতেও অবশ্য বরফ গলেনি। মেয়েটির বিয়ে হয়ে যায়। এই ছবিগুলি পুলিশের বয়ান অনুযায়ী ৮-১০ মাস আগে তোলা হয়েছিল। তবে সপ্তাহখানেক আগে তা স্যোশাল মিডিয়ায় ছাড়া হয়েছে। তারপরই শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

English summary
Assam teacher held after photos of him groping student go viral in social networking
Please Wait while comments are loading...