Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

বজরং দলের ফতোয়া, সপা নেতা আজম খানের মুণ্ডচ্ছেদে ৫১ লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা

  • Written By: Dibyendu
Subscribe to Oneindia News

ভারতীয় সেনাবাহিনীকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের প্রেক্ষিতে সমাজবাদী পার্টি নেতা আজম খানের মুণ্ডচ্ছেদে পুরস্কার ঘোষণা করল বজরং দল। আজম খানের মাথার দাম ধার্য করা হয়েছে ৫১ লক্ষ টাকা।

উত্তর প্রদেশের রামপুরের বজরং দলের সদস্যরা একথা জানিয়েছেন। দিন দুয়েক আগে ভারতীয় সেনাবাহিনীকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের প্রেক্ষিতেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে।

সপা নেতা আজম খানের মুণ্ডচ্ছেদ করতে চায় বজরং দল

একই সঙ্গে মুখে কালো রং লেপে দিতে পারলে এবং তাকে শুয়োরের মাংস খাওয়াতে পারলে এক কোটি টাকা পুরস্কারের কথা ঘোষণা করেছে বজরং দল। তার ডিএনএ টেস্টের দাবি করে পিতৃ-মাতৃ পরিচয় জানানোরও দাবি করা হয়েছে দলের তরফে।

একজন সাচ্চা মুসলিম কখনই দেশের বিরুদ্ধে কথা বলেন না। সেখানে আজম খান সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিতর্কিত মন্তব্য করায়, তিনি সাচ্চা মুসলিম নন বলেই মনে করছে বজরং দল। জানিয়েছেন বজরং দলের আঞ্চলিক প্রধান সরবেশ গাঙ্গোয়ার।

এর আগে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সাজাহানপুর জেলার প্রেসিডেন্ট  রাজেশ অবস্তি আজম খানের জিভ কাটতে পারলে ৫০ লক্ষ টাকা পুরস্কারের কথা ঘোষণা করেছিলেন। নিজের দোকান বিক্রি করেই এই পুরস্কার দেবেন বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

কোথাও কোথাও মহিলা জঙ্গিরা সেনাবাহিনীর সদস্যদের গোপন অঙ্গ ছেদ করছেন বলে মঙ্গলবার ইদের অনুষ্ঠানে আজম খান জানিয়েছিলেন। এর পর থেকেই বিষয়টি নিয়ে সারা দেশেই বিতর্ক চরমে ওঠে। এরপর তার বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে বাধ্য হন আজম খান।

সপা নেতা আজম খানের মুণ্ডচ্ছেদ করতে চায় বজরং দল

ঝাড়খণ্ডে মাওবাদী হামলার প্রসঙ্গ নিয়ে তার এই বক্তব্য বলে ব্যাখ্যা দিয়েছেন তিনি। আজম খান বলেছেন, টিভি এবং সংবাদপত্রে তিনি দেখেছেন, ঝাড়খণ্ডে মহিলা মাওবাদীরা মৃত সিআরপিএফ জওয়ানদের গোপনাঙ্গ কেটে নিয়েছিল। এই কথাই বলতে চেয়েছিলেন তিনি।

ইদের সভায় বক্তব্যের পরেই উত্তরপ্রদেশ জুড়ে থানাগুলিতে আজম খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়তে থাকে। এমনকি তাকে গ্রেফতারের দাবিও উঠেছে বিভিন্ন দল ও সংগঠনের পক্ষ থেকে।

English summary
51 lakh rupees reward for beheading Azam Khan, announces bajrang dal
Please Wait while comments are loading...