Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

ব্রিকস সম্মেলন ২০১৬ : ভারতের মোক্ষম রণকৌশল কী হতে চলেছে?

  • Written By:
Subscribe to Oneindia News

পানাজি, ১৫ অক্টোবর : গোয়ায় শুরু হয়ে গিয়েছে দু'দিনের ব্রিকস সম্মেলন। উপস্থিত হয়েছেন ভারত ছাড়া বাকী চারটি দেশ ব্রাজিল, রাশিয়া, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রপ্রধানরা। এই সম্মেলন সার্কের বৈঠক ভেস্তে যাওয়ার পরে বেশ মুখ্য হয়ে উঠেছে।

শুরু ব্রিকস সম্মেলন, পাকিস্তানকে কোণঠাসা করতে সন্ত্রাসবাদই ইস্যু ভারতের

গত সেপ্টেম্বরেই উরির সেনা ছাউনিতে হামলা চালিয়েছে সীমান্ত পেরিয়ে আসা পাকিস্তানি জঙ্গিরা। পরবর্তীতে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করে তার জবাব দিয়েছে ভারতীয় সেনাও। সন্ত্রাসবাদকে দমন করতে ভারত সরকার যে সর্বাগ্রে ঝাঁপিয়ে পড়বে তা ঠারেঠোরে বুঝিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। এই অবস্থায় ব্রিকস সম্মেলনে কী পদক্ষেপ করবে ভারত তা জেনে নেওয়া যাক একনজরে।

পাকিস্তানের ষড়যন্ত্রের পর্দাফাঁসই লক্ষ্য

পাকিস্তানের ষড়যন্ত্রের পর্দাফাঁসই লক্ষ্য

ব্রিকস সম্মেলনের গোষ্ঠীভুক্ত দেশ ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকা। ইতিহাসগতভাবে এরা প্রত্যেকেই সন্ত্রাসবাদ বিরোধী দেশ বলে আন্তর্জাতিক মঞ্চে খ্যাত। ফলে ভারতের কাছে এটাই সবচেয়ে বড় সুযোগ নিজের দেশে ডেকে এনে পাকিস্তানের ষড়যন্ত্রের পর্দাফাঁস করার।

উরির হামলার বিবরণ দেবে ভারত

উরির হামলার বিবরণ দেবে ভারত

পাকিস্তানি জঙ্গিরা সীমান্ত পার করে কীভাবে এদেশে সন্ত্রাস ছড়ানোর চেষ্টা করছে তা ব্রিকস সম্মেলনের প্রতিনিধি দেশগুলির কাছে সহজেই তুলে ধরার চেষ্টা করবে ভারত। একেবারে জ্বলজ্যান্ত উদাহরণ রয়েছে উরির সেনা ক্যাম্পে হামলায় ১৯ জওয়ানের মৃত্যুর ঘটনা।

পাকিস্তানকে কূটনৈতিকভাবে বিচ্ছিন্ন করার আর একটি চেষ্টা

পাকিস্তানকে কূটনৈতিকভাবে বিচ্ছিন্ন করার আর একটি চেষ্টা

পাকিস্তানকে কূটনৈতিকভাবে সারা বিশ্বের থেকে বিচ্ছিন্ন করার ভাবনা রয়েছে নয়াদিল্লির। সার্ক সম্মেলন বয়কট হোক, উরি হামলার প্রমাণ বিভিন্ন দেশের সামনে তুলে ধরা হোক অথবা সিন্ধু জল চুক্তি নিয়ে হুঁশিয়ারি, এমন বেশ কয়েকটি পথ ইতিমধ্যেই প্রয়োগ করে ফেলেছে মোদী সরকার। ব্রিকস সম্মেলনকে সামনে রেখে সেই ধারাকেই ত্বরান্বিত করতে চাইছে নয়াদিল্লি।

ভারতের দাবি

ভারতের দাবি

ভারত চায়, ব্রিকস গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলি এটা মেনে নিয়ে বিবৃতি দিক যে পাকিস্তান নিজের দেশের মাটি সন্ত্রাসবাদীদের ব্যবহার করতে দিচ্ছে এবং সবরকমভাবে সেদেশের সরকার জঙ্গিদের উৎসাহ দিচ্ছে।

জিনপিংয়ের বাধ্যবাধকতা

জিনপিংয়ের বাধ্যবাধকতা

সূত্রের খবর, গণ প্রজাতন্ত্রী চিন সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে যেমন কঠোর অবস্থান নিতে পারে, তেমনই পাকিস্তানের সঙ্গে চিনের সখ্যতা নেই, এটা প্রমাণ করারও মরিয়া চেষ্টা করতে পারেন চিনা রাষ্ট্রপতি জি জিনপিং।

এনএসজি দাবি আদায়

এনএসজি দাবি আদায়

সন্ত্রাসবাদ ছাড়াও ব্রিকসের মঞ্চকে চিনের থেকে দাবি আদায়ের মঞ্চ হিসাবেও দেখছে ভারত। এনএসজি-তে (নিউক্লিয়ার সাপ্লায়ার্স গ্রুপ) ভারতের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে এতদিন বাধা দিয়ে এসেছে চিন। সেই বরফ গলানো যায় কিনা সেদিকেও লক্ষ্য রেখেছে নরেন্দ্র মোদী সরকার।

মিত্র রাশিয়ার সঙ্গে চুক্তি

মিত্র রাশিয়ার সঙ্গে চুক্তি

এদিকে যেমন চিনা রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গে ভারতের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে, তেমনই মিত্র রাশিয়ার সঙ্গেও বৈঠক ছাড়াও মোট ১৫টি দ্বিপাক্ষিক চুক্তি সাক্ষর করার কথা ভারতের। এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল প্রতিরক্ষা মজবুত করতে মিসাইল সংক্রান্ত চুক্তি।

ব্রিকসের মূল লক্ষ্য

ব্রিকসের মূল লক্ষ্য

ব্রিকস তৈরির মূল লক্ষ্যই ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপ সহ পশ্চিমী আধিপত্যের বিরুদ্ধে একটি মঞ্চ গড়ে তোলা। এই পাঁচটি দেশে বসবাস করেন ৩৫০ কোটিও বেশি মানুষ। এছাড়া আন্তর্জাতিক জিডিপির ও বানিজ্যের অনেকটা অংশ এই ব্রিকস ভুক্ত দেশগুলির দখলে রয়েছে। ফলে এই মঞ্চে পাকিস্তান বিরোধী মনোভাবকে একজোট করে দিতে পারলে ভারতের আর একবার কূটনৈতিক জয় হবে।

English summary
Goa Brics summit 2016 : What would be India's strategy
Please Wait while comments are loading...