Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

একনজরে মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সমস্ত খুঁটিনাটি

  • By: SHUBHAM GHOSH
Subscribe to Oneindia News

অবশেষে হাজির বহু প্রতীক্ষিত সেই দিন : নভেম্বর ৮। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচিত করতে চলেছে সেদেশের ৪৫তম রাষ্ট্রপতিকে যাঁকে দুনিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী মানুষ হিসেবে দেখা হয়। এক ঝলকে দেখা যাক এই অতি গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন সম্পর্কে যাবতীয় কিছু তথ্য একনজরে।

কীভাবে নির্বাচনের দিন ঠিক হয়?

মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় নভেম্বর মাসের প্রথম সোমবারের ঠিক পরের মঙ্গলবার। এবছর নভেম্বরের প্রথম সোমবার পড়েছে সাত তারিখ আর তাই নির্বাচনের তারিখ আট।

একনজরে মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সমস্ত খুঁটিনাটি

কীভাবে প্রক্রিয়াটি অনুষ্ঠিত হয়?

মার্কিন নির্বাচনে আমেরিকার ৫০টি রাজ্য এবং রাজধানী ওয়াশিংটনে, যা কোনও রাজ্যের অন্তর্গত নয়, ভোটদান পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

ভোটাররা নির্বাচনে দাঁড়ানো প্রার্থীদের ভোট দেন। প্রতি রাজ্যে সাধারণের প্রাপ্ত ভোট একটি ইলেক্টোরাল কলেজ গঠিত করে এবং এই কলেজের সদস্যরা জনগণের পছন্দমাফিক রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থীদের সমর্থন জানান। অর্থাৎ, মার্কিন নির্বাচনী ব্যবস্থায় জনসাধারণ সরাসরি রাষ্ট্রপতিকে নির্বাচন করেন না। এই নির্বাচনটি পরোক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন কারা?

এই নির্বাচন মুখ্যত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দু'টি বড় রাজনৈতিক দলের প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টন (ডেমোক্র্যাট) এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প (রিপাবলিকান)-এর মধ্যে। এঁরা ছাড়াও আরও দু'জন প্রার্থী এই নির্বাচনে রয়েছেন। তাঁরা হলেন লিবার্টারিয়ান পার্টির গ্যারি জনসন, গ্রিন পার্টির জিল স্টেন, কনস্টিটিউশন পার্টির ড্যারেল কাসল এবং নির্দল প্রার্থী ইভান ম্যাকমালিন।

উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনের দৌড়ে দুই প্রধান প্রতিপক্ষ হলেন ডেমোক্র্যাট পার্টির টিম কেইন এবং রিপাবলিকান পার্টির মাইক পেন্স।

রাষ্ট্রপতিত্ব পাওয়ার জন্য কত অঙ্ক দরকার?

ভারতে যেমন লোকসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে গেলে ৫৪৫টি আসনের অর্ধেকের বেশি অর্থাৎ ২৭২টি জিততে হয় সরকার গঠন করতে গেলে, তেমনি আমেরিকায় রাষ্ট্রপতি হতে গেলে একজন প্রার্থীকে ২৭০টি ইলেক্টোরাল ভোট পেতে হবে যা মোট ইলেক্টরের সংখ্যার (৫৩৮) এর অর্ধেকের বেশি।

একটি রাজ্যের ইলেক্টর-এর সংখ্যা নির্ভর করে কংগ্রেসে তার কতজন প্রতিনিধি তার উপর। এই মুহূর্তে মার্কিন প্রতিনিধিসভায় সদস্য সংখ্যা ৪৩৫, সিনেটে ১০০ এবং ওয়াশিংটনে (ডিস্ট্রিক্ট অফ কলম্বিয়া) ৩ যার সম্মিলিত সংখ্যা ৫৩৮। তার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ইলেক্টরের সংখ্যাও ৫৩৮। একটি রাজ্য থেকে কতজন প্রতিনিধি থাকবে তা নির্ভর করে তার জনসংখ্যার উপরে।

রাষ্ট্রপতির পাশাপাশি উপরাষ্ট্রপতির নির্বাচনও হয় এই একই প্রক্রিয়াতে।

কোন রাজ্য থেকে কতজন ইলেক্টর?

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে জনবহুল রাজ্য ক্যালিফোর্নিয়া থেকে আসেন ৫৫জন ইলেক্টর। টেক্সাস থেকে ৩৮ জন। নিউ ইয়র্ক এবং ফ্লোরিডা থেকে ২৯জন। অন্যদিকে, আলাস্কা, ডেলাওয়্যার, ভারমোন্ট ইত্যাদি রাজ্য থেকে আসেন মাত্র তিনজন করে ইলেক্টর। কারণ তাদের অতি অল্প জনসংখ্যা।

ইলেক্টররা কবে রাষ্ট্রপতি এবং উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচন করেন?

৮ নভেম্বর আসল নির্বাচন হলেও ইলেক্টোরাল কলেজের প্রতিনিধিরা রাষ্ট্রপতি এবং উপরাষ্ট্রপতিকে সরকারিভাবে নির্বাচিত করবেন ডিসেম্বরের ১৯ তারিখ। সব রাজ্যেই জনসাধারণের মতমাফিক প্রার্থীরা ইলেক্টরদের সমর্থন পান।

কিন্তু, নেব্রাস্কা এবং মাইন প্রদেশে কার্যকরী 'স্প্লিট সিস্টেম'। এই ব্যবস্থা মাফিক জনসাধারণের ভোটার প্রেক্ষিতে দু'জন ইলেক্টর ঠিক হন। আর বাকিদের ঠিক করা হয় জেলাগুলিতে জনগণের ভোটের নিরিখে।

সুইং স্টেট

মার্কিন মুলুকে অনেক রাজ্য যেমন ডেমোক্র্যাটদের ঘাঁটি, সেরকম বেশ কিছু রাজ্য আবার রিপাবলিকানদের ঘাঁটি। কিন্তু এরকম কিছু রাজ্য আছে যাদের পছন্দ বদলায় এবং এদেরকে বলা হয় 'সুইং স্টেট'।

ফ্লোরিডা, পেনসিলভানিয়া, ওহায়ো ইত্যাদি মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সুইং রাজ্য আর তাই রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থীরা এইগুলিতে জেতার জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেন। নির্বাচনের অন্তিম ফলাফল 'সুইং' প্রদেশগুলিতে কী হল, তার উপর নির্ভর করে অনেকটাই।

আরও যে সমস্ত নির্বাচন হবে ৮ নভেম্বর

রাষ্ট্রপতি এবং উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনের পাশাপাশি প্রতিনিধিসভার ৪৩৫ জন সদস্য এবং সিনেটের ৩৪জন সদস্যকেও এদিন নির্বাচিত করা হবে। এছাড়াও ১২টি রাজ্যের গভর্নর এবং বিভিন্ন স্থানীয় নির্বাচন এবং গণভোটও এদিন অনুষ্ঠিত হবে। সব মিলিয়ে, এদিন সারা দুনিয়ার নজর থাকবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দিকে।

কোন সময়ে?

বিভিন্ন রাজ্যে ভোটদানের সময় আলাদা হলেও মোটামুটিভাবে স্থানীয় সময়ে সকাল ৬টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ভোটদান চলবে (কিছু রাজ্যে তা রাত ৯টা অবধি চলবে)। নিউ হ্যাম্পশায়ার রাজ্য থেকে প্রথম ফলাফল জানা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। ভোটদান পর্ব শেষ হলেই শুরু হবে বুথফেরত সমীক্ষা। ভারতীয় সময়ে এই নির্বাচনী পর্ব শেষ হতে হতে বুধবার সকাল।

আরও কিছু তথ্য

  • মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি রাজ্যের মধ্যে ৩৩টি গত পাঁচটি নির্বাচনে একই দলকে ভোট দিয়েছে।
  • এই নির্বাচনে বৈধ ভোটারের সংখ্যা প্রায় ২৪ কোটি যদিও ২০১২ সালে মাত্র ৫৪ শতাংশ মানুষ ভোট দিয়েছিলেন
  • এবারের নির্বাচনে নির্দল প্রার্থী হিসেবে যিনি দাঁড়িয়েছেন, সেই ইভান ম্যাকমালিন একজন প্রাক্তন সিআইএ আধিকারিক।
English summary
A backgrounder for the US Presidential elections 2016 with key points
Please Wait while comments are loading...